আকাশে অদ্ভুত বস্তু তুরস্কের!

 

 

স্বাধীন নিউজ ডেস্ক!
ভূমধ্যসাগরীয় দেশ তুরস্কের বুরসার আকাশে অদ্ভুত এক বস্তুর দেখা মেলে। এটিকে অনেকে ইউএফও মনে করেছিলেন। তবে এটি কোনো অদ্ভুত বস্তু বা ইউএফও নয়। এটি আসলে মেঘ, যা লেন্টিকুলার মেঘ হিসেবে পরিচিত।

বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) সকালে সূর্যোদয়ের সময় গোলাপি রঙের মেঘটি প্রথম দেখা যায়। এর মাঝে বড় আকারের গর্ত ছিল। এক ঘণ্টারও বেশি সময় এটি দেখা যায়। ওই সময় অনেকে এটির ছবি তোলেন। এরপর মেঘটি মিলিয়ে যায়।

অদ্ভুত এ মেঘের ছবি প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। এরপর এটি পুরো বিশ্বে ছড়ায়। তুরস্কের আবহাওয়া দপ্তর পরে নিশ্চিত করে, এটি একটি লেন্টিকুলার মেঘ।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, লেন্টিকুলার মেঘের আকৃতি বাঁকা হয়। এটি দেখতে উড়ন্ত সস পেনের মতো লাগে। আর এ মেঘ পাওয়া যায় বায়ুমণ্ডলের ২ হাজার থেকে ৫ হাজার মিটার উচ্চতার মধ্যে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফক্স নিউজ জানিয়েছে, যখন বায়ুমণ্ডল স্যাচুরেশনের শিখড়ে থাকে তখন লেন্টিকুলার মেঘ তৈরি হয়। মানে এ মেঘ তৈরি হয়, যখন বাতাস আদ্র ও স্থিতিশীল থাকে এবং পাহাড় ও পর্বতের ওপর শক্তিশালী বাতাস ওঠানামা করে।

সাধারণত শীতকালে এগুলো বেশি গঠিত হয়। তবে বছরের অন্য সময়গুলোতেও এর দেখা মিলতে পারে। এ ধরনের মেঘ বৃষ্টির পূর্বাভাসও দিয়ে থাকে। কারণ কোনো ঝড় তৈরি হলে এমন অদ্ভুত মেঘ সৃষ্টি হয়।

 

 

 

 

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -