আযান ঘুমোতে দেয় না অভিযোগে মসজিদে মাইক ব্যবহার নিষিদ্ধ

0
213

ভারতের উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সেখানকার মসজিদে মাইক ব্যবহার নিষিদ্ধ করলো দেশটির আদালত। আযান নাকি ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায় এমন অভিযোগ করেছিলেন ওই শিক্ষক।

জেলা প্রশাসকের নির্দেশমতে, শুক্রবার থেকে রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত মসজিদসহ কোনো ধর্মস্থানে মাইক ব্যবহার করা যাবে না। এমনকি ফজরের আযানও খালি গলায় দিতে হবে মোয়াজ্জেনকে।

এর আগে এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সঙ্গীতা শ্রীবাস্তবের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ। সঙ্গীতার অভিযোগ ছিল, আযান কেবল তার ঘুমই নষ্ট করে না, তার মাথাও ধরিয়ে দেয়। এর জন্য তার কাজের ক্ষতি হচ্ছে।

মার্চের শুরুতে এলাহাবাদ জেলা প্রশাসকের কাছে লেখা চিঠির ভিত্তিতে প্রয়াগরাজ পুলিশের আইজি কবিন্দ্র প্রতাপ সিং জেলা প্রশাসক ভানু চন্দ্র গোস্বামীকে নির্দেশ দিয়ে বলেছেন রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত যেন মাইক বন্ধ থাকে। তবে এই নিষেধাজ্ঞা কেবল ধর্মস্থানগুলিতেই নয়, সমস্ত স্থানের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে।

প্রয়াগরাজ রেঞ্জের আওতাধীন চারটি জেলার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং সিনিয়র সুপারিনটেন্ডেন্টদের চিঠিতে আইজি বলেন, কর্মকর্তাদের অবশ্যই সুপ্রিম কোর্ট এবং এলাহাবাদ হাইকোর্টের আদেশ কার্যকর করতে হবে।

এর আগে বুধবার উত্তর প্রদেশের জৌনপুর জেলার বদদোপুর ও শাহগঞ্জ গ্রামে দুটি মসজিদে আযানের সময় মাইক ব্যবহার নিষিদ্ধের প্রশাসনিক আদেশ বাতিলে রাজি হয়নি এলাহাবাদ হাইকোর্ট।

সূত্র: উড়িষ্যা পোস্ট