উজিরপুরে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে মারধর, থানায় অভিযোগ!

0
46

বিশেষ প্রতিনিধি।।

বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার ওটরা ইউনিয়নের মশাং গ্রামে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া যায়। কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মারধর করা হয়েছে বলে এক গৃহবধূ চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১নং স্বাক্ষী এ বি এম আব্দুল হক মোল্লা(৭৫), পিতাঃ মৃত. আঃ জব্বার মোল্লা মাধ্যমে আজ ৩১ আগষ্ট মঙ্গলবার উজিরপুর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে, উপজেলার ওটরা ইউনিয়ন মোঃ মোশারফ মোল্লার স্ত্রী মোসা. আছিয়া বেগম(২৫) অভিযোগ করেন বলেন, “আমার স্বামী মোশারফ মোল্লা চট্টগ্রাম চাকুরী করে, আমাদের দুটি ছেলে আছে, এবং বড় ছেলে ডাবেরকুল মাদ্রাসায় পড়া শোনা করে, পার্শ্ববর্তী মৃত. মজিদ মোল্লার ছেলে মোঃ জসিম মোল্লা(২৮) বিগত দুই বছর ধরে আমাকে উত্যক্ত করে এবং আমার দিকে তাকিয়ে অঙ্গভঙ্গী করে, এক পর্যায় জসিম মোল্লা(২৮) আমাকে কুপ্রস্তাব দেয়, আমি কুপ্রস্তাবে রাজি না হলে আমাকে জোর পূর্বক ধর্ষন করার হুমকি দেয়, এঘটনা আমি আমার স্বামীকে অবগত করলে স্থানীয় সালিশ ব্যাবস্থা হলে তা তোয়াক্কা না করে জসিম মোল্লা আমাকে ধর্ষন করার পায়তারা করতে থাকে, এরই পেক্ষাপটে গত ২৯ আগষ্ট রবিবার সন্ধ্যা আনুমানিক ৭:৩০ মিনিটের দিকে আমার স্বামীর ঘরের সামনে এসে জসিম মোল্লা আমাকে টিপ্পনী মারে ও আমাকে ঘরের পেছনে ডাক দেয়, তখন আমি বলি – তুই আমারে ডাকো কেন? এই বলিয়া কথা কাটকাটি শুরু হলে আমার মুখে উপর লাঠি দিয়ে বাড়ি মেরে আমার ঠোঁট কেটে ফেলে, পরে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে জখম করে। ডাক চৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে আমাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য অটো গাড়ি যোগে উজিরপুর হাসপাতালে নিতে গেলে পথে বাধা দেওয়া হলে অন্য পথ ধরে তাৎক্ষণিক ভাবে আমাকে গৌরনদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়, বর্তমানে আমি চিকিৎসারত আছি। আমি এ ঘটনার আইনানুগ বিচার চাই। ”

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আর্শাদ জানান, এব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি, মারামারি হয়েছে কিন্তু বিষয় কুপ্রস্তাব কিনা সেটাও তদন্ত সাপেক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তারিখ:৩১-০৮-২০২১ইং