এক মাদরাসা থেকেই একসঙ্গে কোরআনে হাফেজ হলো ৬৫ শিশু

গতকাল রাতে লক্ষ্মীপুরে স্বীকৃতিস্বরূপ ৬৫ জন কোরআনে হাফেজকে পাগড়ি দেওয়া হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে মহিউস সুন্নাহ জালালিয়া মাদরাসার দ্বিতীয় শাখা ভবনে আয়োজিত বার্ষিক ইসলামি বয়ান অনুষ্ঠানে হাফেজদের পাগড়ি বিতরণ করা হয়।

এ সময় মাদরাসার কিতাব শাখার পাঁচতলা ভবনের উদ্বোধন করেন অতিথিরা। মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র আবু তাহেরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকার ঢালকানগর পীর শাহ আবদুল মতিন বিন হুসাইন (দা. বা.)।

এদিন হাফেজদের পাগড়ি পরিয়ে দেন মাদরাসার বার্ষিক ইসলামি বয়ানের বিশেষ অতিথি ঢাকার জামেয়া ফজলুল উলুম মাদরাসার শায়খুল হাদিস মুফতি ওমর ফারুক সন্দ্বিপী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়্যার প্রধান প্রশিক্ষক আল্লামা শিব্বির আহম্মদ (দা. বা.) ও লক্ষ্মীপুর দারুল উলুম কামিল মাদরাসার মোহাদ্দিস মুহাম্মদ মহিউদ্দিন। হাফেজরা লক্ষ্মীপুরসহ বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা। তারা মাদরাসায় এক থেকে তিন বছর পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে।

এ সময় বক্তারা বলেন, কোরআনে হাফেজরা আলোর দিশারি। আল্লাহ তাদের অন্তরে কোরআনের প্রত্যেকটি অক্ষর গেঁথে দিয়েছেন। তাদের মধুরকণ্ঠে কোরআনের আয়াত মুসল্লিদের মুগ্ধ করবে। তাদের দেখে সবাই কোরআন শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ হবে।

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -