এবার ভোট চোরদের হাতেনাতে ধরা হবে : আমীর খসরু

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, দেশের মানুষ ভোটাধিকার, আইনের শাসন এবং জীবনের নিরাপত্তা ফিরে পেতে চায়। জনগণ স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে এই অনির্বাচিত ও নির্যাতনকারী সরকারকে বিদায় নিতে হবে। এবার আর ভোট চুরি করতে দেওয়া যাবে না। ভোট চোরদের হাতেনাতে ধরা হবে। এরপর নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে দেশের মানুষের জন্য সরকার নির্বাচিত করতে হবে। বিএনপির এই ২৭ দফা আন্দোলনের একটি অংশ।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) বিকেলে নগরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির উদ্যোগে ১০ দফা দাবি ও রাষ্ট্রকাঠামো মেরামতের বিষয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

আমীর খসরু বলেন, দেশকে গভীর গর্ত থেকে তুলে আনতে হলে ২৭ দফার বিকল্প নেই। দেশকে বাঁচাতে হলে জনগণের সঙ্গে কিছু ওয়াদা দিতে হবে। সেটাই করেছেন দেশনায়ক তারেক রহমান। রাষ্ট্রকাঠামো মেরামতের রূপরেখা ঘোষণা দিয়ে তারেক রহমানের নেতৃত্বের যোগ্যতা অনেক উপরে স্থান পেয়েছে। আজকে বিএনপির ২৭ দফার রূপরেখা বাস্তবায়ন না হলে বাংলাদেশ পরিচালনা করা সম্ভব হবে না।

তিনি বলেন, বিএনপির সরকারে কোনো রোগী বিনা চিকিৎসায় ও টাকার অভাবে মারা যাবে না। জাতীয় সংসদে নারীদের প্রাধান্য দেওয়া হবে। শিক্ষিত জাতি ছাড়া দেশ কোনোভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারবে না। প্রত্যেকটা নাগরিক যাতে হেলথ সুবিধা পায়, সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তারেক রহমান যে পরিকল্পনা নিয়েছেন তাতে দেশের আমূল পরিবর্তন হবে। আবার যারা হতদরিদ্র তাদেরকে ওষুধের জন্য টাকা দেওয়া হবে। যারা চাকরি পাবে না, যারা বেকার তাদের জন্য বাজেটের একটি অংশ বরাদ্দ থাকবে।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্করের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গোলাম আকবর খন্দকার, এস এম ফজলুল হক, বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রম সম্পাদক এ এম নাজিম উদ্দিন ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান।

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -