advertisement

এবার সেই উপস্থাপক নাহিদের খোঁজে মাঠে নামছে ডিবি

বিশেষ রিপোর্ট স্বাধীন নিউজ

প্রতিমন্ত্রীর পদ হারানোর পর ডা. মুরাদ হাসানকে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্যবিষয়ক পদ থেকেও সরিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং অব্যাহতি কার্যকরের সুপারিশ করে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।
ফেসবুকে যে অনুষ্ঠানে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মেয়ের উদ্দেশ্যে অশালীন ও বর্ণবাদী মন্তব্য করে ফেঁসেছেন ডা. মুরাদ হাসান, ওই অনুষ্ঠানের উপস্থাপকের বিষয়ে খোঁজ-খবর নিচ্ছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

নাহিদরেইন্স পিকচার্স নামের একটি ফেসবুক পেজে লাইভ অনুষ্ঠানে আপত্তিকর মন্তব্য করেছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করা মুরাদ হাসান। ‘অসুস্থ খালেদা, বিকৃত বিএনপির নেতাকর্মী’ শিরোনামে অনুষ্ঠানটি যিনি উপস্থাপনা করছিলেন তার নাম নাহিদ।
মুরাদ হাসানের আপত্তিকর মন্তব্যগুলো ফেসবুকে ভাইরাল হলে এ নিয়ে প্রচণ্ড সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। তখন থেকে প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় উঠে আসে অনুষ্ঠানের উপস্থাপক নাহিদের নাম।

অভিযোগ রয়েছে নাহিদ ওই সাক্ষাৎকারে প্রতিমন্ত্রীকে অশালীন মন্তব্য করার জন্য উসকানিমূলক একাধিক প্রশ্ন করেছেন। আর এসব অভিযোগের ভিত্তিতে নাহিদের সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিচ্ছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ। তিনি বলেন, আমরা যতটুকু জেনেছি নাহিদ নামে ছেলেটির কাছে বোধহয় একটি টিভি ক্যামেরা আছে। সে বিভিন্ন সময় মন্ত্রী মহোদয়কে উসকানিমূলক কথা বলেছে। তার বিষয়ে আমরা খোঁজ খবর নিচ্ছি।

এদিকে, সরকার ‘বিব্রত’ হওয়ায় তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে মুরাদ হাসানকে পদত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ওই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, কিছুদিন ধরেই কনিষ্ঠ সহকর্মীর মধ্যে কিছু ‘পরিবর্তন’ তিনি টের পাচ্ছিলেন।

অডিও কেলেঙ্কারির জেরে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মুরাদ হাসান মঙ্গলবার দুপুরে পদত্যাগপত্র পাঠানোর পর সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে নিজের এই পর্যবেক্ষণের কথা জানান হাছান মাহমুদ।

spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -spot_img

সর্বাধিক পঠিত