খালেদা জিয়ার কিডনি-হার্টের চিকিৎসা বাংলাদেশে সম্ভব নয়

0
12

বিশেষ রিপোর্ট।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কিডনি ও হার্টের সমস্যা নিয়ে তার চিকিৎসকরা উদ্বিগ্ন বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া পোস্ট কোভিড পজিশন থেকে ভালো আছেন। তবে তার হার্ট ও কিডনির সমস্যা আছে। বাংলাদেশে এ সমস্যাগুলোর চিকিৎসা সম্ভব নয়। তার দেশের বাইরে উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন।

রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুক্রবার সকালে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমাদের সবচেয়ে বড় ক্ষতি হয়েছে আদালতে। রাজনীতি থেকে শুরু করে সব কিছু হয়েছে আদালতে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিলসহ সব কিছুতে ক্ষতি হয়েছে আদালতে। আর সবচেয়ে বড় যে ক্ষতি— ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) প্রতি অবিচারটাও হয়েছে আদালতে। তাই আদালতে যেতে আস্থা কম পাই।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বাংলাদেশের মানুষের দাঁড়ানোর কোথাও জায়গা নেই। কোথাও যে আশ্রয় নেবে, সে জায়গা নেই। আগে মানুষের আশ্রয়ের জায়গা ছিল আদালত, সেটিও এখন নেই। রাষ্ট্র যখন নিপীড়নকারী হয়ে যায়, তখন আর আশ্রয়ের কোনো জায়গা থাকে না।

মির্জা ফখরুল অবিলম্বে খালেদা জিয়া, নিপুণ রায়চৌধুরী, আসলাম চৌধুরীসহ দলের ও বিরোধী মতের নেতাকর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দাবি করেন। তিনি বলেন, আমি সরকারকে বলব—মানুষকে শান্তিতে থাকতে দিন, মানুষকে বেঁচে থাকতে দিন। ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করে না। ফেরাউন, নমরুদ, হিটলার, মুসোলিনি—কেউ বাঁচতে পারেনি, এটি ইতিহাস।’