গাইবান্ধায় জমি নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ৩

দিপু আহসান, (স্বাধীন নিউজ):
গাইবান্ধার সদর উপজেলার কুপতলা গ্রামে বিরোধপূর্ণ জমির দখল উদ্ধার করতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়েছেন রফিকুল ইসলাম(৫৫) নামের একজন। এ সময় আহত হয়েছেন একজন নারীসহ মোট ৩ জন।
গতকাল ১৬ই জানুয়ারি সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গাইবান্ধার সদর উপজেলার কুপতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
আহতদের মধ্যে রফিকুল ইসলামের (৫৫) অবস্থা একেবারেই আশঙ্কাজনক। রফিকুল ইসলাম বর্তমান গাইবান্ধার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।
অন্যান্য আহতদেরও উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও বিভিন্ন ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কুপতলা গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে আতাউর রহমান আতা ও তার বংশধররা পেশিশক্তির প্রভাবে মালিকানা না থাকা সত্বেও ৪৮শতাংশ জমি দীর্ঘদিন যাবত জোরপূর্বক ভোগ করে আসছে। বিভিন্ন সময়ে সালিশি বৈঠক করেও এর কোনো সমাধান হয়নি।
গতকাল সোমবার ওই ৪৮শতাংশ জমির প্রকৃত মালিক রফিকুল ইসলাম জমিতে গেলে আতাউর রহমান আতা(৫৫) ও তার বংশধর বিল্পব(২৬), সামাদ(৫০), মিনার(৫৬) রফিকুল ইসলামের প্রতি বেকে বসেন। একটা পর্যায়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করে পূর্বপরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্র ছোরা, দা,বটি,লাঠি ও অন্যান্য সরঞ্জাম দিয়ে জীবননাশের উদ্দেশ্যে রফিকুল ইসলামের মাথায় ছোরা মারেন আতাউর রহমান আতা। ছোরার আঘাতে রফিকুল ইসলাম মাটিতে লুকিয়ে পড়েন। রফিকুল ইসলামকে এলোপাতাড়ি পিটানো দেখে এনামুল হক(৬০) ও আরও দু’একজন  এগিয়ে এলে আতাউর রহমান আতারা তাদেরকেও আঘাত করে বসেন। এতে একজন নারীসহ মোট আহত হন ৩জন। ঘটনাস্থলে রফিকুল ইসলামের মেয়ের গলার স্বর্ণের চেন আতাউর রহমান আতা ছিনিয়ে নিয়েছেন বলে জানা গেছে। পরক্ষণে রফিকুল ইসলামকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে যান এবং তার মাথায় মোট ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।
স্থানীয় লোকজন জানান, শুধু জমির দখল বিরোধই নয়, আতাউর রহমান আতা সমাজের বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত। লোকমুখের অন্তরালে নিজ বাড়িতে দীর্ঘদিন অবস্থান করতে না পেরে ঢাকায় অবস্থান নিয়ে মাঝমধ্যে গ্রামে বেড়াতে আসেন। এবং ঢাকায় একাধিক মামলার আসামি আতাউর রহমান আতা।
এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -