advertisement

চন্দনাইশ ইউপি নিবার্চনের নৌকার কান্ডারীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি চট্টগ্রাম মহানগর।
দক্ষিণ চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয় গত ২৭ নভেম্বর শনিবার।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৫ জানুয়ারী’২০২২ ইং নিবার্চন অনুষ্টিত হবে। ইউনিয়ন ৮ টি হলো উপজেলার কাঞ্চনাবাদ, জোয়ারা,বরকল, বরমা,বৈলতলী, সাতবাড়ীয়া, হাশিমপুর, ধোপাছড়ি।
এদিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের নাম (৫ই ডিসেম্বর) রাতে দলীয় দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক পত্রে নিশ্চিত করা হয়েছে।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী পঞ্চম ধাপে চন্দনাইশ উপজেলায় আটটি ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৫ই জানুয়ারি।
সরকার দলীয় নৌকা প্রতীক প্রাপ্তরা হলেন, চন্দনাইশ হাসিমপুর ইউনিয়নে নৌকার নতুন কান্ডারী খোরশেদ বিন ইসহাক,বৈলতলী ইউনিয়ন এস এম সায়েম,বরকল ইউনিয়ন ফেরদৌস আলম খান, সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন ফোরুক আহমেদ,ধোপাছড়ি ইউনিয়ন আব্দুল আলীম, কাঞ্চন নগর ইউনিয়ন এডভোকেট আবু সালেহ।
 নৌকার পুরাতন কান্ডারির মধ্য পুনরায় দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করছেন জোয়ারা ইউনিয়ন হতে আমিনুল ইসলাম (রোকন) ও বরমা ইউনিয়নের নুরুল ইসলাম।
উল্লেখ্য যে ৯ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন।যাচাই বাছাই ১০/১২ ডিসেম্বর, বাছাইয়ের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের, ১৩/১৪ ডিসেম্বর আপিল নিষ্পত্তি হবে।এ ছাড়া প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১৫ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ১৭ ডিসেম্বর ও ভোটগ্রহণ ৫ জানুয়ারী’২০২২ অনুষ্ঠিত হবে ।
এইদিকে সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন নির্বাচনের সীমানা জটিলতায় বিষয়ে
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া ইসলাম বলেছেন, দোহাজারী পৌরসভার সীমানা নির্ধারণের কাজ এগিয়ে চলছে।তবে সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ার্ড বিভাজনের কাজ শুরু হয়নি।
নিবার্চন কমিশন যেহেতু তফসিল ঘোষনা করেছেন, সেহেতু সরকার যেভাবে চায়, সেভাবে নিবার্চন অনুষ্টিত হবে।
 এদিকে উপজেলা নির্বাচনী কর্মকর্তা মিনহাজুল ইসলাম জানান যেহেতু নির্বাচন কমিশন থেকে আটটি ইউনিয়নের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে, সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন নিয়ে সীমানা জটিলতা থাকলেও কমিশন থেকে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত নির্বাচনী কার্যক্রম চলমান থাকবে।
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -spot_img

সর্বাধিক পঠিত