চুলের যত্নে ম্যাজিকের মতো কাজ করে এই ফুল,

  • শীত ঋতুতে কমবেশি সারা বছরই চুলের নানা সমস্যায় ভোগেন। বাতাসে এই সময়ে আর্দ্রতার পরিমাণ অনেকটাই কমে যায়। স্বাভাবিকভাবে স্ক্যাল্প ও চুলেও তার প্রভাব পড়ে। এই কারণেই খুশকির সমস্যা বাড়ে। স্ক্যাল্প রুক্ষ হয়ে যায়।
  • শীতের আবহাওয়াতে স্ক্যাল্পেও প্রাকৃতিক আর্দ্রতার ঘাটতি হয়, চুলেও তার প্রভাব দেখা দেয়।
  • এতে চুল পড়ার সমস্যাও বাড়ে। মাথায় খুশকি ভরে যায়। নানা হেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করে আমরা এই সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করি। কিন্তু এমন অনেক প্রাকৃতিক উপাদান রয়েছে, যা চুলের যত্নে ম্যাজিকের মতো কাজ করে। যেমন জবা ফুল ও পাতা।
  • জবা ফুল যে চুলের জন্য একটি ম্যাজিকাল উপাদান, তা প্রায় এখন সবাই জানেন। নানা হেয়ার প্রোডাক্টেও তাই জবা ফুল ব্যবহার করা হয়। খুশকির সমস্যা থেকে চুল পড়ার সমস্যা, সবই সমাধান করতে পারে এই জবা ফুল।
  • কীভাবে ব্যবহার করবেন, জেনে নিন। জবা ফুলের হেয়ার প্যাকের সন্ধান রইল। এই হেয়ার প্যাক সপ্তাহে এক দিন চুলে লাগাতে হবে।
  • জবা ফুলে আছে উপকারি ভিটামিন সি। এই ভিটামিন সি-এর ঘাটতি চুল পড়ার অন্যতম কারণ। তাই চুলের যত্নে জবা ফুল ব্যবহার করলে এই ভিটামিনের ঘাটতি কমে।
  • স্বাভাবিকভাবেই চুল পড়ার সমস্যাও কমতে থাকে। একাধিক গবেষণাতেও এই উল্লেখ পাওয়া গিয়েছে।
  • এমনকি নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে। তাই চুল ঘন হয়। জবা ফুলের উপকারী উপাদান যে আপনাকে ঘন কালো চুল ফিরিয়ে দিতে পারে, তা একাধিক গবেষণাতেও উল্লেখ করা হয়েছে।
  • ‘কেমিক্যাল কনস্টিটুয়েন্টস, ফার্মালজিকাল এফেক্টস অ্যান্ড থেরাপেটিক ইমপর্টেন্স অফ হিবিসকাস’ গবেষণা পত্রে এমন উল্লেখ করা হয়েছে।
  • জবা ফুল চুল ভালো রাখতেও যেমন সাহায্য করে, পাশাপাশি স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্যও ভালো রাখে। আর ঠিক সেই কারণেই স্ক্যাল্পে অতিরিক্ত তেল নিঃসরণ করে। ‘ফার্মাসিউটিকাল বায়োলজি’-তে প্রকাশিত গবেষণা পত্রেও সেই কথা উল্লেখ করা হয়েছে।
  • এর মধ্য়ে আছে অ্যান্টি মাইক্রোবায়াল উপাদান, যা আপনার স্ক্যাল্পে খুশকির মতো সমস্যাকেও নিয়ন্ত্রণ করে।
  • আপনার প্রয়োজন একটি জবা ফুল। ৪টি জবা ফুলের পাতা এবং ৪ টেবিল চামচ টক দই। প্রথমে জবা ফুল ও পাতা ভালো করে পেস্ট করে নিন। এবার একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি হবে।
  • এর মধ্য়ে আপনি মিশিয়ে দিন চার টেবিল চামচ টক দই। প্রতিটি উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। আপনার হেয়ার প্যাক তৈরি।
  • এই হেয়ার প্যাক আপনার চুলে ও স্ক্যাল্পে ভালো করে লাগিয়ে নিতে হবে। ১ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। কন্ডিশনার ও হেয়ার সিরাম লাগাতে ভুলবেন না কিন্তু।
  • এই হেয়ারপ্যাক আপনার চুলের গোড়া মজবুত করে। চুল রাখে নরম। ফলে সহজেই চুল ভেঙে যায় না। চুলের জেল্লাও হয় দেখার মতো।
  • খুশকির সমস্যায় জবা ফুলের প্যাক: খুশকির সমস্যা সমাধানে জবা ফুলের ব্যবহার যথেষ্ট জনপ্রিয়। এছাড়া মেথি গুঁড়া ব্যবহারেও খুশকি প্রতিরোধ করা হয়। ঘরোয়া রূপটানে এই দুটির ব্যবহার বেশ জনপ্রিয়।
  • আপনার প্রয়োজন ১ টেবিল চামচ মেথি গুঁড়ো। পনেরো-বিশটি জবা ফুলের পাতা। দৃই চামচ টক দই। জবা ফুলের পাতা গ্রাইন্ডারে ভালো করে পেস্ট করে নিন।
  • এবার একটি পাত্রে সেই জবা ফুলের পাতার পেস্টের মধ্যে ১ টেবিল চামচ মেথি গুঁড়া ও টক দই মিশিয়ে দিন। সব উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে একটি হেয়ার প্যাক তৈরি করুন।
  • এই হেয়ার মাস্ক আপনার চুলের গোড়ায়, স্ক্যাল্পে ও চুলে ভালো করে লাগিয়ে নিন। এক ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। তারপর আপনি শ্যাম্পু করে ফেলুন।
  • হেনা ও জবা ফুলের এই প্যাকে খুশকির সমস্যা সমাধান: এই হেয়ার প্যাক আপনার চুলকে কন্ডিশনিং করবে। এটি আপনার চুলকে যেমন ময়শ্চারাইজ করে।
  • পাশাপাশি খুশকির সমস্যাও সমাধান করে। প্রাকৃতিক হেয়ার কন্ডিশনার হিসেবে বেশ কার্যকরী।
  • আপনার প্রয়োজন ২-৩টি জবা ফুল। কয়েকটি জবা ফুলের পাতাও নিন। এর সঙ্গে মিশিয়ে দিন ২ টেবিল চামচ হেনা পাউডার। জবা ফুল ও জবার পাতা ভালো করে গ্রাইন্ড করে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন।
  • এবার তার সঙ্গে মিশিয়ে দিন হেনা পাউডার। প্রয়োজন অনুযায়ী অল্প অল্প জল মিশিয়ে হেয়ার প্যাক তৈরি করুন।
  • এটি আপনার স্ক্যাল্পে ও চুলে ভালো করে লাগিয়ে নিন। ১ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না।
এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -