জাতীয় ছুটি ঘোষণা বিশ্বকাপ জয় উদযাপনের জন্য আর্জেন্টিনায়

 

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক!

১৯৮৬ সালের পর দীর্ঘ ৩৬ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সের বিপক্ষে জয়ের মাধ্যমে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন খেতাব পায় মেসির দেশ আর্জেন্টিনা।

এরপরই মহোৎসবে মেতে ওঠে পুরো আর্জেন্টিনা। এমনকি, বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দ উদযাপনে মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) জাতীয় ছুটি ঘোষণা করেছে আর্জেন্টিনা সরকার।

মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় বার্তাসংস্থা রয়টার্স ও ক্রীড়া বিষয়ক ওয়েবসাইট ইসপিএন।

প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়, মঙ্গলবার আর্জেন্টিনার জাতীয় দল রাজধানী বুয়েনস আইরেসের ওবেলিস্কে বিশ্বকাপ জয় উদযাপন করবে। আর এ উপলক্ষে এদিন আর্জেন্টিনায় জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে, যাতে সব শ্রেনি-পেশার মানুষ এ আনন্দ উদযাপনে অংশ নিতে পারেন।

ক্রীড়া বিষয়ক নানা অর্জনের পর আনন্দ উদযাপনের জন্য ঐতিহ্যবাহী একটি স্থান বুয়েনস আইরেসের এ স্মৃতিস্তম্ভটি।

 

আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এএফএ) অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে জানানো হয়েছে, সাধারণ মানুষের সঙ্গে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ জয়ের আনন্দ ভাগ করে নিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্যরা মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানী বুয়েনস আইরেসের ওবেলিস্কের উদ্দেশ্যে রওনা দেবে।

এর আগে মঙ্গলবার ভোরে রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থার ফ্লাইটে দেশে পৌঁছাবে তারা ও বিমানবন্দরের কাছাকাছি অবস্থিত ফেডারেশনের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অবস্থান করবেন।

এরই মধ্যে আর্জেন্টিনা দলের খেলোয়াড় ও সদস্যরা দেশে পৌঁছেছেন। এএফএ সভাপতি ক্লদিও তাপিয়া তার টুইটার অ্যাকাউন্টে লেখেছেন, আর্জেন্টিনা, আমরা এসে গেছি।

এর আগে রোববার (১৮ ডিসেম্বর), ফুটবলের ক্ষুদে জাদুকর লিওনেল মেসির নেতৃত্বে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে পরাজিত করে তৃতীয় বিশ্বকাপ ঘরে তোলে আর্জেন্টিনা। এর পরপরই রাজধানী বুয়েনস আইরেসের রাস্তায় উল্লাসে মেতে ওঠেন হাজার হাজার আর্জেন্টাইন নাগরিক।

ফ্রান্সের বিপক্ষে রোববারের নাটকীয় বিশ্বকাপ ফাইনালে প্রথমার্ধে ২-০ তে এগিয়ে থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধের শেষের দিকে দুই মিনিটে দুটি গোল খেয়ে বসে আর্জেন্টিনা।

পরে অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধে মেসির পা থেকে গোল এলেও, পরে পেনাল্টিতে সমতা আনেন আরেক দুর্দান্ত ফরাসি ফুটবলার কিলিয়ান এমবাপে।

তবে শেষ পর্যন্ত পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্সকে ৪-২ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতে নেয় মেসির দল। এর মাধ্যমে ১৯৭৮ ও ১৯৮৬ সালের পর তৃতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ ঘরে তোলে আর্জেন্টিনা

অনেকেই কাতার বিশ্বকাপের আর্জেন্টিনা-ফ্রান্স ম্যাচটিকে ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফাইনাল বলে আখ্যা দিয়েছেন।

 

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -