advertisement

ঝরেপড়া শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরিতে জরিপ শুরু হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অনেক শিক্ষার্থী পড়ালেখা থেকে ঝরে পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকস্তরের ঝরে পড়াদের তালিকা তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ।

পরীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ থেকে জানা গেছে, এইচএসসি পরীক্ষার পর জরিপ কার্যক্রম শুরু করা হবে। চলমান অতিমারির কারণে গত ১৭ মাস দেশের সবধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। এ সময়ে অনেকে ঢাকা মহানগর ছেড়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নিজ জেলায় বা অন্য জেলায় স্থানান্তর হয়েছেন। এ কারণে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা ক্লাসে আসছে না। অনেকে গ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠনে ভর্তি হওয়ায় তাদের চিহ্নিত করা সম্ভব হচ্ছে না।

জানা গেছে, করোনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অনেকের বাল্যবিবাহ, বিভিন্ন কাজে যুক্ত, কেউ কেউ পড়ালেখা ছেড়ে দিয়েছে। বর্তমানে তারা আর স্কুল-কলেজে যাচ্ছে না। এসব শিক্ষার্থীর সংখ্যা চিহ্নিত করতে জরিপ কাজ শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে পরীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের পরিচালন অধ্যাপক আমির হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, সারাদেশে কি পরিমাণে শিক্ষার্থী পরীক্ষা ও ভর্তি হয়েছে, কি পরিমাণে বাদ পড়েছে সেটি মূলায়ন করা হবে।

তিনি বলেন, করোনার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সচল হলেও মাধ্যমিক পর্যায়ের ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ শিক্ষার্থীর উপস্থিতি ছিল। তবে মাধ্যমিকে ৯৩ শতাংশ অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিয়েছে। তার পরিপেক্ষিতে বোঝা যাচ্ছে মাধ্যমিকে ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী পড়ালেখার মধ্যে রয়েছে, বাকি সাত শতাংশ ঝরে পড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

কোন পদ্ধতিতে তথ্য সংগ্রহ করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চলমান এইচএসসি পরীক্ষার পর জানুয়ারিতে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চিঠি দিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ, ক্লাসে উপস্থিতির তথ্য চাওয়া হবে। ছক আকারে সেসব তথ্য পাঠাতে বলা হবে। সেসব তথ্য আসার পর তা সমন্বয় করে একটি প্রতিবেদন তৈরি করা হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -spot_img

সর্বাধিক পঠিত