তীব্র তাপদাহ সিলেট জুড়ে।

0
36

বিনিত দাস বড়লেখা মৌলভীবাজার ঃ

সিলেটের বিভাগের সকল জেলা ও উপজেলায় কোথাও আকাশের মেঘের নেই ঘনঘটা। সূর্যের তেজ দিন বাড়ার সাথে সাথে আগুনের ফুল্কি ছড়াচ্ছে। এ অবস্থায় একটু শীতল পরশের আশায় কর্মজীবীরা বার বার কলের পানি দিয়ে গা ধুয়ে ঠান্ডা পরশ নিচ্ছেন। গত দুইদিন থেকে বড়লেখাউপজেলা সহ পুরো সিলেট জুড়ে বইছে তাপদাহ।
কোনো সুখবর দিতে পারছেন না সিলেটের আবহাওয়াবিদরাও। তারা বলছেন, এমন অসহনীয় গরম অন্তত: আরও ৩দিন ভোগাবে।
গত দুদিন থেকে সূর্য উদয়ের সাথে সাথে সিলেটে বাড়তে থাকে তাপমাত্রা। দুপুরের দিকে তাপমাত্রা তাপদাহে পরিণত হয়। এসময় প্রয়োজনে বাইরে বেরনো মানুষের গরমে হয় হাঁসফাঁস অবস্থা। বিশেষ করে দিনের অসহ্য গরম সহ্য করে জীবিকার তাগিদে ঘরে বসে নেই সিলেটের খেটে খাওয়া মানুষ। তীব্র গরম উপেক্ষা করে জীবিকার তাগিদে কর্মঘণ্টা ব্যয় করেছেন তারা। তীব্র গরমে সিলেটে প্রাণীকূলের প্রাণও ওষ্ঠাগত।
রাজমিস্ত্রিী সজিব দাস বলেন আমাদের গরম-শীত, রোদ-বৃষ্টি সবই সমান। খেতে হলে কাজ করতে হবে। তাই এতো গরমের মধ্যে ঘরে বসে থাকা সহ্য হচ্ছে না তখন আমরা তীব্র রোদের মধ্যে কাজ করছি। তিনি বলেন ৩০ মিনিট কাজ করার পর পানি দিয়ে গা মুছে আবার কাজ শুরু করছি। আজ গরমের তীব্রতা গত দুই দিনের চেয়ে বেশি ছিল। শ্রমিক ধলাই মিয়া বলেন, শরীর থেকে সারা যেন বাইরে যেতে চায়। একটু পর পর টিউবুয়েল থেকে পানি খাচ্ছি আর হাত মুখে দিচ্ছি। একে কিছুটা হলেও শান্তি লাগে। এতো গরম গা পুড়ে যাচ্ছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তর সিলেট কার্যালয়ের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী রোববার (২৩ মে) আগামী তিনদিন বৃষ্টির সম্ভাবনা নাই। সিলেটে আজকে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা, আগামী ৩/৪ দিন তাপমাত্রা আরও বাড়বে। ২৬ মে পরে হালকা বৃষ্টি এবং ৩০ মে নাগাদ ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।