দিঘীনালা প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বপ্নের নীড়ে ৪১৭ পরিবার।

0
45

জসিম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধিঃ

পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলার দিঘীনালা উপজেলায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের অধীনে মুজিববর্ষে প্রতিবন্ধী, বিধবাসহ গৃহহীন ৪১৭ পরিবার পেলো প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বপ্নের ঠিকানা।উপজেলার হতদরিদ্র দুস্হ প্রতিবন্ধী, স্বামীহারা বিধবা নারীসহ ৪১৭টি অসহায় হতদরিদ্র গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবার পেয়েছে তাদের স্বপ্নের ঠিকানা।

খাগড়াছড়ি জেলাপ্রশাসনের সার্বিক তদারকিতে দিঘীনালা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় দিঘীনালায় স্বপ্নের ঠিকানা পেলো ৪১৭টি পরিবার। উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন দিঘীনালা সদর ইউনিয়ন,বোয়ালখালী ইউনিয়ন, কোবাখালী ইউনিয়ন, মেরুং ইউনিয়ন সহ প্রতিটি ইউনিয়নের দূর্গম এলাকায় হতদরিদ্র দুস্হ প্রতিবন্ধী বিধবা নারীসহ অসহায় মানুষদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পৌঁছে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে দিঘীনালা উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের দূর্গম এলাকায় বিভিন্ন প্রতিকূলতার মধ্যেও উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির তত্বাবধানে ঘরগুলো অত্যন্ত মানসম্মতভাবে সম্পন্ন হয়েছে। উপকারভোগী মেরুং ইউনিয়নের দূর্গম এলাকা জুরজুরি পাড়ার বিধবা জোবেদা বেগম বলেন,আমার স্বামী নেই আমার পরের জায়গায় থাকি মানুষের দুয়ারে দুয়ারে ভিক্ষা করে খাই আমার সংসারে উপার্জন করার মত কেউ নেই অশ্রুসিক্ত নয়নে বললেন মো: আব্দুর রহমান মেম্বার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ উল্যাহ স্যারের সহযোগিতা সরকারি ঘর পেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাতে ভূলেনি বিধবা জোবেদা বেগম।আবেগাপ্লত কণ্ঠে একাধিক উপকারভোগী জানান, সারাজীবনের চেষ্টায়ও যে মাথা গোজার ঠাঁই করতে পারেননি, অনায়াসে স্বপ্নের সেই বসত ঘর পেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতেও ভূলেননি তারা।

মেরুং জুরজুরি পাড়া এলাকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের ৪২ পরিবারের জন্য এক একর জায়গা জেলা প্রশাসক মহোদয়কে কাগজ করে দিয়েছেন মেরুং ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার মো:আব্দুর রহমান।

দিঘীনালা উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো:মুশফিকুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরগুলি সচ্চভাবে করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রতিটি ইউনিয়নে নিজে স্বশরীরে গিয়ে ও একজন করে তদারকি কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়ে তদারকি কর্মকর্তাদের যাচাই -বাচাই করে হতদরিদ্র,দুস্হ, প্রতিবন্ধি, বিধবাদের অগ্রধিকার ভিওিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের অধীনে ৪১৭টি গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে ভূমি মন্ত্রনালয়ের ৩০টি দূর্যোগ ব্যবস্হাপনা মন্ত্রনালয়ের ১৩৭ দ্বিতীয় পর্যায়ে দূর্যোগ ব্যবস্হপনা মন্ত্রনালয় ২৫০টি সহমোট ৪১৭টি ঘর প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে। বর্তমানে মানুষ বসবাস শুরু করেছে। দিঘীনালা উপজেলায় ১ম পর্যায়ের প্রথম ধাপে ৩৯টি এবং ২য় ধাপে ৬৫টি ২য় পর্যায়ে ৬০টি সহ মোট গুইমারা উপজেলায় ৪১৭টি গৃহ নির্মাণের কাজ বিভিন্ন সময়ে ঘরগুলো পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্প-২ পরিচালক -৭ মো:রফিকুল ইসলাম, ভূমিমন্ত্রনালয়ের গুচ্ছ গ্রাম প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক,ড:একে এম মো:অলি উল্যাহ ও খাগড়াছড়ি জেলা জেলা প্রশাসক তারা সকলেই ঘরগুলোর গুণগত মান নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।