দুঃসময়ে মানবতার পরিচয় দিয়েছে ; সত্যিই প্রসংশনীয়

0
101

সুমন মোহাম্মদ
ঢাকা প্রতিনিধি

বরগুনা জেলার পাথরঘাটায় বয়স্ক এই থ্যালাসেমিয়া রোগি নাম :নিখিল হাওলাদার,
বাসা কালিপুর,
রক্তের প্রয়োজন হয় প্রতি মাসে। বেশিভাগ সময় দেখা যায় সে নিজে সরকারী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে নিজেই নিজের জন্য রক্তের ডোনার খুজে, সচারচর যে গ্রুপ বেশিভাগ মানুষ বলে বি+ ব্লাড আজ সেই বি+ ব্লাড চার দিনেও খুজে না পাওয়া এই নিখিল।
গতকাল রাত আটটায় সোনার বাংলা ব্লাড ফাউন্ডেশন নামক একটি সামাজিক সেচ্ছাসেবী সংগঠন এর কিছু সদস্য বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে কিছু ভাইয়েরা ডাক দিলো তখন তারা এই রোগির সম্পর্কে বলতেছিলো উপরক্ত বিষয়। কারন রাতে তাদের কাছেই রক্তের সন্ধানে যায় তখন পরিচিত হয় সোনার বাংলা ব্লাড ফাউন্ডেশন একটি সামাজিক সেচ্ছাসেবী নামক সংগঠন এর সাথে আস্বাস দিয়েছে আগামীকল সকাল ১০ টায় ব্লাড দেয়া হবে আর তার যত বছর ব্লাড দরকার হবে ব্লাড ব্যাগ সহ সকল যাবতীয় খরচ সোনার বাংলা ব্লাড ফাউন্ডেশন সংগঠনটি বহন করবে।

আজ সকাল ১১ টায় অনলাইন যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট হয় সোনার বাংলা ব্লাড ফাউন্ডেশন এর পাবলিক গ্রুপে পোস্টি দেখে আয়শা সিদ্দিকীয়া এই রক্তদাতা বোন প্রচুর বৃস্টি তার ভিতরও ছুটে চলে আসে পাথরঘাটা সদর হাসপাতালে বোনটি অধীক সাহসীকতা আর এই দুঃসময়ের মানবতার পরিচয় দিয়েছে যা সত্যই প্রসংশনীয়।
বর্তমান সময় অনলাইন যোগাযোগ মাধ্যম ভালো খারাপ দুই দিকেই ব্যাবহার হয় এর ভিতর বাংলাদেশের হাজার হাজার সেচ্ছাসেবীরা অনেক অনেক সেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এই ফেইসবুকের মাধ্যে মুমূর্ষু রোগিদের জীবনের প্রয়োজনে রক্তদান করিয়ে থাকে।পোস্ট গুলি দেখে এগিয়ে আসে হাজার হাজার মহাম রক্তদাতা।

আর হ্যা এই রক্তের প্রয়োজন ব্লাড সংক্রান্ত বিষয় দেখলে কেহ এরিয়ে যাবেন না। হয় পোস্ট সেয়ার করবেন নয়তো বন্ধুদের মেনশন করে ছড়িয়ে দিবেন হয়তো কোন না কোন মুমূর্ষু রোগির জীবনের প্রসোজনে এই রক্ত দানে কেহ এগিয়ে আসবে।আপনার একটি সেয়ার একটি জীবনের প্রয়োজনে আসবে।
মানবতার জয় হোক।

দুনিয়ার সকল ভালো মানুষ ভালো থাকুক।
স্যালুট রক্তদাতা বোন আয়সা সিদ্দিকীয়া।