দুর্গাপুরে লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ জনজীবন

0
14

রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলায় কারনে অকারণে লোডশেডিং সীমাহীন দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ।
বিদ্যুতের এই আলো-আঁধারের খেলায় অতিষ্ঠ মানুষ । প্রতিদিন কমপক্ষে ১০-১৫ বার লোডশেডিং দেয়া হচ্ছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিদ্যুৎ না থাকায় মানুষ অসহ্য
গরমের যন্ত্রণায় কাতর হয়ে পড়েছে।
আকাশ একটু মেঘাচ্ছন্ন হলেই, তিব্র গরম পড়লে চলে যাচ্ছে বিদ্যুৎ। মাসজুড়ে তিব্র তাপদহন পুড়ছে পুরো রাজশাহী অঞ্চল নিয়মিত বিরতিতে লোডশেডিং বাড়তি কষ্টের যোগ করেছে।
এনিয়ে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইছে। গ্রাহকদের পূর্বের অভিযোগ বিল প্রস্তুতে গড়মিল করেন। কারণে অকারণে বিদ্যুৎ টানা দেশে তো বিদ্যুৎ এর কোনো ঘাড়তী নেই তবে কেন এতো লোডশেডিং প্রশ্ন জনমনে।
এবিষয়ে হারুন আর রশিদ জানান, আজানের সময় কারেন্ট টানে নামাজের মাঝে কারেন্ট টানে বিল তো ঠিক নেয় এতো কষ্ট কেনো দেয়?
রনি ইসলাম জানায়, কারেন্ট যায় না মাঝে মাঝে আসে। দুঃখ প্রকাশ করে কোনো লাভ নেই কারণ এতে কিছুই হবে না।
৬ জুন রবিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত একাধিক বার লোডশেডিং হয়। এতে করে
জনজীবন থেকে শুরু করে ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প-কারখানা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, চিকিৎসাসেবা, প্রকাশনা শিল্প সর্বত্রই ত্রাহি অবস্থা।আবার ফ্রিজের খাবার নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অনেকই।
এ বিষয়ে দুর্গাপুর জেনারেল অফিসের
ডিজিএম জানায়, এটা লোডশেডিং নয় রেডহট হওয়ার কারণে এই সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। অতিরিক্ত লোড নেওয়ার কারণে যন্ত্রপাতি অতিরিক্ত গরম হয়ে যাচ্ছে দুর্ঘটনা এড়াতে বিরতি দেওয়া হচ্ছে। কাটা খালী স্টেশনের যন্ত্রপাতিগুলো বেশ পুড়নো, চাপ কমলে এই সমস্যার সমাধান হবে।

শাহীন আলম রাজশাহী