নবীগঞ্জে তীব্র গরমে জনজীবন অতিষ্ট।।বেড়েছে বিভিন্ন রোগের প্রকোপ

0
30

নিরব তালুকদার, নবীগঞ্জ থেকেঃ

গত ২ দিনের প্রচন্ড গরমে কাঁতরাচ্ছে নবীগঞ্জের মানুষ। অতিষ্ঠ হয়ে পড়ছে জন-জীবন। অসহনীয় তীব্র তাপদাহে দেখা দিয়েছে চরম অশান্তি। প্রকৃতির নির্মম তাপদাহে পুড়ছে সারা নবীগঞ্জ। এর উষ্ণায়নে ক্রমেই প্রভাব ফেলেছে জনজীবনে। বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা বেশি থাকায় গরম দিন দিন অসহনীয় হয়ে উঠছে। গত দু’দিনে নবীগঞ্জে গরমের প্রভাব মারাত্বক বৃদ্ধি পেয়েছে। অব্যাহত তীব্র তাপদাহের কারণে জনজীবনে দেখা দিয়েছে চরম বিপর্যয়। এছাড়া প্রচন্ড গরমে দেখা দিয়েছে নানা রকমের রোগবালাই। শিশু-যুবক ও বৃদ্ধরা আক্রান্ত হচ্ছেন সর্দি, জ্বর, কাশি,ম্যালেরিয়া, ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগে। গত দুদিনের প্রচন্ড গরমে জন জীবন চরমভাবে বিপন্ন হয়ে পড়েছে। ঘামতে ঘামতে রাস্তায় হাঁটছেন পথচারীরা। যানজটে আটকা পড়া মানুষের অবস্থা আরও খারাপ। শ্রমজীবি মানুষের শরীর বেয়ে পড়ছে ঘাম। দিন বাড়ার সাথে সূর্যের প্রখরতার প্রচন্ড তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ নিজ প্রয়োজন ছাড়া কোথাও বের হচ্ছেন না। তবে খেটে খাওয়া মানুষ বাধ্য হয়ে জীবিকার তাগিদে দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনা করতে রাস্তায় বের হতে বাধ্য হচ্ছেন। ফলে অতিষ্ঠ রৌদ্রের তাপে পুড়ছেন সারাদিন। কোথাও যেন একটু স্বস্থি নেই। অনেকেই একটু শান্তির জন্য বিভিন্ন ছায়াদানকারী গাছের তলায় বিশ্রাম নিচ্ছেন। মানুষজনদের বিভিন্ন দোকানে দাঁড়িয়ে বা বসে ঠান্ডা পানীয়, কুক বা এনার্জি ড্রিংক পান করতে দেখা গেছে। আবার অনেকেই গরমে অতিষ্ট হয়ে শরবত তৈরী করে পান করছেন। ছোট ছোট বাচ্চারা দল বেঁধে পুকুরে নেমে গোসল ও সাঁতার কাটতে দেখা গেছে। তাপদাহ বৃদ্ধি পাওয়ায় নবীগঞ্জ শহরের নতুন বাজার বাসস্ট্যান্ড, জুয়েল ম্যানসনের সামনে, রুদ্রগ্রাম সড়ক, রাজাবাদ পয়েন্ট, গন্ধ্যা পয়েন্টসহ বিভিন্নস্থানে লেবুর শরবত ও ডাবের পানি ক্রয় করে পান করতে ভীড় জমাচ্ছেন তৃষ্ণার্ত লোকজন।