পরিকল্পনা মন্ত্রীর অবদান : ৫০ বছর পর রাস্তা পেল কান্দাগাঁও গ্রামবাসী

0
11

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের ০১ নং ওয়ার্ডের অবহেলিত একটি গ্রাম কান্দাগাঁও। স্বাধীনতার পর থেকেই রাস্তা ছিল না এই গ্রামটির। ফলে কষ্টের শেষ ছিলনা তাদের। তাদের দুঃখ দুর্দশার কথা চিন্তা করে ৫০ বছর পর তাদের স্বপ্ন পূরণ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ্ব এম এ মান্নান এমপি। মন্ত্রীর একান্ত প্রচেষ্টায় বাস্তবায়নের মুখ দেখে পাথারিয়া গ্রাম – কান্দাগাঁঁওয়ের ১ কিলোমিটার রাস্তাটি। বহুল প্রত্যাশিত স্বপ্ন পূরণ হওয়ায় খুশি গ্রামের সর্বস্তরের মানুষ।

শুক্রবার (১১জুন) বিকেলে বহুল প্রত্যাশিত কান্দাগাঁও রাস্তার কাজ পরিদর্শন করেন পরিকল্পনা মন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব হাসনাত হোসেন।

এসময় হাসনাত হোসেন বলেন, এই রাস্তাটির জন্য সবসময়ই আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রাজা ভাই। সর্বশেষ মন্ত্রী মহোদয়ের একান্ত প্রচেষ্টায় এই রাস্তাটি হয়েছে৷ ৫০ বছর কান্দাগাঁও গ্রাম বাসির দুঃখ লাগব হল। শুধু কান্দগাঁওই নয় মন্ত্রী মহোদয়ের প্রচেষ্টায় উন্নয়নের জোয়ার বইছে পুরো জেলায়। এরকম নেতা পেয়ে আমরা সুনামগঞ্জবাসী গর্বিত।

সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সামছুল ইসলাম রাজা বলেন, মানুষ কল্পনাই করত না এই রাস্তাটি হবে। পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ্ব এম এ মান্নান মহোদয়ের প্রচেষ্টায় আলোর মুখ দেখেছে কান্দাগাঁও বাসী। আমরা দোয়া করি আল্লাহ যেন আমাদের মন্ত্রী মহোদয়কে দীর্ঘ হায়াত দান করেন।

কান্দাগাও গ্রামের খোকা দেবনাথ, রাস্তাটি পেয়ে কত খুশি হয়েছি বলে বুঝাতে পারব না। আমরা মন্ত্রী মহোদয়ের প্রতি চির কৃতজ্ঞ।

রাস্তার কাজ পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন, পাথারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সামছুল ইসলাম রাজা, সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা কৃষকলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাজাহারুল ইসলাম মঈনুল, ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক মোঃ শাহজাহান, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা নিতাই দাস, তোফায়েল আহমেদ, আব্দুস ছামাদ টিপু প্রমুখ।