পাবনার কাশিনাথপুরে কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের মানবেতর জীবন-যাপন

0
54

আব্দুল জব্বার. সাথিঁয়া(পাবনা)

করোনার কারণে আগে থেকেই সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। এখন চলছে লকডাউন। কর্মহীন হয়ে পড়েছেন সব শ্রেণিপেশার মানুষ। এর মধ্যে সাথিঁয়া উপজেলার কাশিনাথপুরের কিন্ডারগার্টেন স্কুলের (কেজি) শিক্ষকদের পরিবারে চলছে নীরব দুর্ভিক্ষ। কারণ তাদের পরিবার চলে শিক্ষার্থীদের বেতনের টাকায়। অস্বচ্ছল পরিবারের এসব শিক্ষকদের সহায়তায় কেউ এগিয়ে না আসায় চরম বিপাকে পড়েছেন তারা।

এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধিকাংশই শিক্ষার্থীদের মাসিক বেতনের টাকায় পরিচালিত হয়। শিক্ষার্থীদের টাকায় শিক্ষকরা বেতন ভাতা পেয়ে থাকেন। তা দিয়ে চলে শিক্ষকদের অস্বচ্ছল পরিবারের ভরণ পোষণ।

কিন্তু প্রতিষ্ঠানগুলো ছুটি থাকার কারণে শিক্ষার্থীদের বেতনও বন্ধ রয়েছে। পাশাপাশি বন্ধ রয়েছে এসব শিক্ষকদের প্রাইভেট টিউশন। ফলে কোনোদিক থেকেই তারা উপার্জন করতে পারছেন না। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের অর্থবিত্ত না থাকলেও সমাজে তারা শিক্ষক হিসেবেই সম্মানীয়। ফলে এখন তাদের সংসারের ব্যয়ভার বহন করতে হিমশিম খাচ্ছেন।

নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষক বলেন, কেজি স্কুলে শিক্ষকতা ও প্রাইভেট পড়িয়ে কোনো রকম পরিবারের খরচ সামাল দিচ্ছি। এমনিতেই কেজি স্কুল থেকে ঠিকভাবে বেতন পাই না তার উপর করোনায় লকডাউন। ফলে আর্থিক অস্বচ্ছল শিক্ষকদের পরিবারে অভাব অনাটন চলছে। শিক্ষিত মানুষ চক্ষু লজ্জার ভয়ে কাউকে বলতেও পারছি না আবার সইতেও পারছি না। তাই সরকার ও সমাজের বিত্তবান মানুষেরা যেন আমাদের কষ্টটা একটু বোঝার চেষ্টা করেন।

কাশিনাথপুরের আলোর মেলা আর্দশ পাঠশালার প্রধান শিক্ষক জনাব নুরুল ইসলাম জানান, আমাদের কেজি স্কুলের শিক্ষকরা সরকারি কোনো সুযোগ সুবিধা পায়না। এই দুর্যোগ মুহূর্তে এখনো পর্যন্ত আমাদের শিক্ষকরা সরকারি বা বেসরকারিভাবে কোনো ধরনের সহযোগিতা না পাওয়ায় তাদের পরিবারে হাহাকার বিরাজ করছে। চলমান দুর্যোগে আমাদের শিক্ষক-কর্মচারীদের সরকারি সহায়তার আবেদন জানাচ্ছি।