পেকুয়াতে পরকিয়ায় শিশু রেখে গৃহবধু উধাও, অবশেষে ৮ মাস পর গ্রেপ্তার

জসিম তালুকদার ব্যুরো প্রধান (চট্টগ্রাম)
পেকুয়ায় এক বছর বয়সের দুধের শিশুকে রেখে পরকীয়ার টানে উধাও হয়ে গেছে গৃহবধু। দীর্ঘ ৮ মাস পর অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে সেই গৃহবধু। স্বামীর দায়ের করা মামলায়  পেকুয়া থানার পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার টইটং ইউনিয়নের ইউপি কার্যালের সামনে থেকে ৩ ডিসেম্বর  শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করে।
 পেকুয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, একটি সিআর মামলার গ্রেপ্তারী পরোয়ানা থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে।
জানাগেছে,টইটং ইউনিয়নের ছনখোলার জুম এলাকার আব্দু ছবুরের ছেলে আব্দুর রহিমের (২৫)  সাথে রাজাখালী ইউনিয়নের বামুলার পাড়া এলাকার হাফেজ আহমদের মেয়ে শারমিন আক্তারের (২১) বিগত ২০১৮ সালের ১৯ আগষ্ট বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের তামিম নামের ১ বছর বয়সের এক শিশু সন্তান রয়েছে।
শারমিনের স্বামী আব্দুর রহিম বলেন, বিয়ের দুই বছর সুখে ছিল সংসার। এরপর স্ত্রী অবাধ্য হয়ে যায়। বাড়িতে নলকুপ বসানোর সময় নলকুপ মিস্ত্রীর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে শারমিন। এক বছরের দুধের শিশুকে ঘুমে রেখে  টাকা, স্বর্নসহ মুল্যবান জিনিস নিয়ে মিস্ত্রি মো.সোহেলের সাথে পালিয়ে যায় শারমিন। ফিরিয়ে আনতে শত চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। যার নং-সিআর-১২২৪/২১।
জানাগেছে,সোহেল পেকুয়া সদর ইউনিয়নের নন্দীরপাড়া এলাকার মো.ভোল্লা প্রকাশ ভোলাইয়ার ছেলে।
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -