প্রবাসী পরিবার ও রাষ্ট্র ক্ষতিগ্রস্ত হবে সংবাদ সম্মেলনে- আটাব নেতৃবৃন্দ

0
228

স্টাফ রিপোর্টার

লকডাউন চলাকালে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রাখার কোনো যৌক্তিকতা নেই। আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রাখলে সময়মত কর্মস্থলে পৌঁছতে না পারলে বিদেশগামী কর্মীর পরিবার ও রাষ্ট্র ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ছুটিতে আসা প্রবাসী কর্মী এবং নতুন ভিসাপ্রাপ্ত কর্মীদের সময়মত কর্মস্থলে পৌঁছানোর বিষয়টি বর্তমান সরকারের মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করতে হবে। সঠিক সময়ে কর্মস্থলে গমন করতে না পারার কারণে তাদের কর্মচ্যুতি হলে পরিবার পরিজন পথে বসার উপক্রম হবে। হাজার হাজার প্রবাসী কর্মী বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের টিকিট সংগ্রহ করে কর্মস্থলে গমনের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় রয়েছেন। ফ্লাইট বাতিলের কারণে প্রবাসের কর্মস্থলে যোগদান করতে না পারলে জনশক্তি রফতানি খাত চরম হুমকির সম্মুখীন হবে। দেশের অর্থনীতির চালিকা শক্তি শ্রমবাজারের এ খাতকে টিকিয়ে রাখতে হলে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করেই আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু রাখতে হবে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার সেগুনবাগিচাস্থ ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটি হলরুমে এসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আটাবের সভাপতি মনছুর আহামেদ কালাম। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম, হাবের সিনিয়র সহ সভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী, আটাব মহাসচিব মাজহারুল হক ভূঁইয়া, মাওলানা ফজলুর রহমান, মুফতি মোস্তাফিজুর রহমান, মুফতি জুনায়েদ গুলজার, মুফতি জাহিদ হোসেন, আবু তাহের ,আলহাজ মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম, ওয়ালিউর রহমান।

হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ছুটিতে দেশে আসা এবং নতুন ভিসায় বিদেশের কর্মস্থলে যোগদান করতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু রাখা অতীব প্রয়োজন। অন্যথায় তাদের চাকরি হারানোর শঙ্কা রয়েছে। একজন প্রবাসী র আয়ের উপর তার পুরো পরিবার নির্ভরশীল। তিনি বলেন, প্রায় বিশ হাজার বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মী চড়া দামে টিকিট ক্রয় করে ফ্লাইটের জন্য অপেক্ষা করছেন। সময়মত বিদেশে যেতে না পারলে তাদের জীবনে নেমে আসবে ভয়াবহ দুর্যোগ। হাব সভাপতি তসলিম রেমিট্যান্সের উর্দ্ধগতি ধরে রাখতে এবং অসহায় প্রবাসী কর্মীদের সুবিধার্থে সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।