প্রাইভেট শিক্ষককে বিয়ের দাবিতে স্কুলছাত্রীর অনশন

জেলা প্রতিনিধি | নীলফামারী |

নীলফামারী সদরে বিয়ের দাবিতে মনিরুজ্জামান বাবু নামের একজন প্রাইভেট শিক্ষকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন করছে দশম শ্রেণির এক ছাত্রী।

শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) রামনগর খামাতপাড়া গ্রামে ওই শিক্ষকের বাড়িতে অবস্থান নেয় ওই কিশোরী। তার দাবি, বিয়ের প্রলোভনে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছেন মনিরুজ্জামান বাবু।

এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন বাবু। তিনি খামাতপাড়া গ্রামের মকছেদুলের ছেলে। পেশায় চাঁদের হাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ল্যাব অপারেটর হিসেবে কর্মরত।

বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেওয়া স্কুলছাত্রীর ভাষ্য, ‘দুই বছর আগে প্রাইভেট পড়ার সময় মনিরুজ্জামান স্যারের সঙ্গে আমার প্রেম হয়। বিয়ের কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক করেন তিনি। এখন বিয়ে করার কথা বললে টালবাহানা করছেন। আমার তো সব শেষ। বিয়ে না করলে এখন জীবন শেষ করা ছাড়া উপায় নেই। আমি এ জীবন শেষ করে দেবো।’

স্কুলছাত্রীর বাবা বলেন, ‘আমার মেয়ে ছোট মানুষ। কী না কী বুঝিয়ে ওর সর্বনাশ করেছে। আমি এর বিচার চাই।’

রামনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ওবায়দুল ইসলাম বলেন, ‘মেয়েটি অপ্রাপ্ত বয়স্ক। এখানে আমরা বিয়ে বা অন্য কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। ছেলেপক্ষ থানায় মামলা দিয়েছে। কোর্ট বা থানায় মামলা দিলে আমাদের আর কিছু করার থাকে না।’

এ বিষয়ে জানতে মনিরুজ্জামান বাবুর মোবাইলে কল দিলে তিনি রিসিভ করেননি। যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউপ বলেন, ছেলেপক্ষ মামলা করেছে। মেয়েপক্ষের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা চলছে। তবে তারা কোনো ধরনের যোগাযোগ করছেন না।

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -