প্রেমিকের বাড়ীতে প্রেমিকার অনশন



নাজিবুল বাশার: বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ীতে অনশন শুরু করেছে প্রেমিকা। অনশনরত প্রেমিকাকে দেখতে স্থানীয়রা সকাল থেকেই ভিড় জমাচ্ছে। এ ঘটনায় এলাকায় উৎসুক মানুষের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৩ জানুয়ারী মঙ্গলবার মধুপুরের কুড়াগাছা ইউনিয়নের পিরোজপুর গ্রামে।
রোনাল্ডোকে অ’শ্লীল যৌ’ন উপহার দিয়েছেন বান্ধবী জর্জিনা! ভয়ঙ্কর দাবিতে উত্তাল স্পেনের রাজনীতি,বিস্তারিল https://swadhinnews.com/বান্ধবী-জর্জিনা-অশ্লীল-য/
স্থানীয়রা জানান, পিরোজপুর গ্রামে সার ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম ওরফে ছোট রহির ছেলে রাকিব ঘাটাইল জিবিজি কলেজে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হয়। অধ্যয়নকালে একই কলেজে একই শ্রেণীর ঘাটাইলের জামুরিয়া ইউনিয়নের চানতারা গ্রামের ওই ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। চলে তাদের মধ্যে প্রেম। এক পর্যায়ে প্রেমিক রাকিবের সাথে বনিবনা না হওয়ায় ঘাটাইল জিবিজি কলেজ থেকে পরীক্ষা দিয়ে চলে আসার সময় প্রেমিকা ও তার লোকজন রাকিব ও তার বাবা আব্দুর রহিম ওরফে ছোট রহিকে আটকে ফেলে। পরে দেন দরবার করে রাকিব ও তার বাবা সটকে আসে। এর পর থেকে আবার শুরু হয় তাদের মধ্যে মন দেয়া নেয়া। কিছুদিন যাবত প্রেমিক প্রেমিকার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দিলে ৩ জানুয়ারী মঙ্গলবার সকাল থেকে মধুপুরের পিরোজপুর বাজারের উত্তর পাশে অবস্থিত প্রেমিকের বাড়ীতে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে।
মুখের মত পিঠে ব্রণ ওঠার কারণ কী? সমাধানে করণীয়! জেনে নিন বিস্তারিত https://swadhinnews.com/মুখের-মত-পিঠে-ব্রণ-ওঠার-কা/
বিকালে মধুপুর শহর থেকে ৬ কি. মি দুরে কুড়াগাছা ইউনিয়নের পিরোজপুর বাজারের উত্তর পাশে প্রেমিকের বাড়ীতে গেলে দেখা যায় স্থানীয় উৎসুক জনতা ভিড় করে আছে। বাড়ীর গেইটে একটি মেয়ে ব্যাগ হাতে দাড়িয়ে আছে। মেয়েটির সাথে কয়েক জন সাংবাদিক কথা বলতে গেলে রাকিবের মা ছোট রহির স্ত্রী বাধা দেয়। রাকিবের মা কে সাংবাদিকরা জিজ্ঞাসা করে আপনি কে? তিনি কোন উত্তর না দিয়ে বাধা দিতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। স্থানীয়রা জানালেন, তিনি ছোট রহির স্ত্রী রাকিবের মা। পরে অনশনরত মেয়ের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি চিল্লাতে থাকেন চেয়ারম্যান আসার আগে কথা বলা যাবে না। এক পর্যায়ে অনশনরত মেয়ে জানান, সকালে ওই বাড়ীতে আসলে তাকে টেনে হিছড়ে বের করে দেয়া হয়। এ সময় তার হাতের আঙ্গুলও কেটেছে বলে জানায়। এর পর থেকে বাড়ীর গেইটে সকাল থেকে দাড়িয়ে অনশন শুরু করে।
তিনি আরো জানান, তারা দুজনে একই কলেজে পড়ার সুবাদে প্রেমের সম্পর্ক হয়। এক বছর যাবত চলছে তাদের প্রেম। তার কাছে তাদের প্রেমের কোন তথ্য প্রমাণ আছে কি না ? এমন প্রশ্নের জবাবে মেয়েটি জানান, মোবাইলে তথ্য প্রমাণ ছিল। সকালে ওই বাড়ীতে আসার পরেই তার হাত থেকে মোবাইল কেড়ে নেয়া হয়েছে। তার দাবি প্রেমিকের কাছে তিনি বিয়ে বসবেন।
পিরোজপুর বাজারে রাকিবের বাবা আব্দুর রহিম ওরফে ছোট রহি সাংবাদিকদের জানান, না কিছুই হয় নি। মেয়েটি কোথায় জানতে চাইলে তিনি জানান, বাজারেই আছে। বিষয়টি তিনি এড়িয়ের যাওয়ার চেষ্টা করেন। পরে স্বীকার করেন তার বাড়ীতেই মেয়েটি রয়েছে। কেন এসেছে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।
এ ব্যাপারে কুড়াগাছা ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুুল হক সরকার জানান, মেয়েটি ওই বাড়ীতে ছিল। নিরাপত্তার জন্যে আমার বাড়ীতে নিয়ে এসেছে।

নাজিবুল বাশার
মধুপুর প্রতিনিধি

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -