বাণিজ্য মেলায় কোটি টাকার খাট কেনার চেয়ে দেখার লোক বেশি!

 

উপজেলা প্রতিনিধি | সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

রাজধানীর পূর্বাচলে চলছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। মেলায় বিভিন্ন পণ্যের পসরা নিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। স্টলে স্টলে চলছে প্রদর্শনী। দর্শনার্থীদের পাশাপাশি প্রতিদিনই বাড়ছে ক্রেতাসংখ্যাও।

করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে সৃষ্ট অর্থনৈতিক মন্দা পরিস্থিতিতেও এবারের মেলা নিয়ে সন্তোষের কথা জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) ছিল ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার ১০ম দিন। এদিন সন্ধ্যায় সরেজমিনে মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে অন্য বহু পণ্যের পাশাপাশি চোখ জুড়ানো এক খাটের দেখা মিলেছে। জানা গেছে, মেলার প্রথম দিন থেকেই দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে ‘পরী পালঙ্ক’ নামের নান্দনিক এ খাট।

ক্রেতা-দর্শনার্থীদের অনেকে কোটি টাকা দামের এই খাটের পাশে দাঁড়িয়ে সেলফি তুলছেন। অনেকে খাটটির ভিডিও করছেন। মেলায় আসা অনেকের আগ্রহের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে কোটি টাকার এ খাট।

মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা গেছে, খাটের চার কোণে শোভা পাচ্ছে ডানা মেলে দাঁড়িয়ে থাকা চারটি কাঠের তৈরি পরী। পরীদের ডান হাতে রয়েছে প্রজাপতি। ওই চার পরীর মাথার ওপর থেকে পরস্পরের সঙ্গে সংযুক্ত কাঠের ফ্রেম। খাটের চারপাশে ছোট ছোট পরী এবং দৃষ্টিনন্দন নকশা।

ওই খাটের সঙ্গে সেলফি তুলতে আসা এক দর্শনার্থী জাগো নিউজকে জানান, মেলার প্রথম দিন থেকেই কোটি টাকার এ খাটটির ছবি ও ভিডিও দেখেছি। আজ মেলায় এসে প্রথমেই খাটটি দেখতে এই প্যাভিলিয়নে এলাম। এতো দাম দিয়ে খাট কেনার সামর্থ্য নেই। তাই খাটের সঙ্গে ছবি তুলে আনন্দ নিচ্ছি।

শুধু তিনিই নন, কোটি টাকা দিয়ে খাট কেনার সাধ থাকলেও সাধ্য নেই অনেকেরই। তাই কাঠের গায়ে শৈল্পিকতার ছোঁয়ায় তৈরি এ খাট কেনার চেয়ে দেখার লোকই বেশি।

মেলায় বিক্রি করতে আসা খাটটির মালিক মো. নুরুন্নবী জানান, পার্বত্য অঞ্চল খাগড়াছড়ি থেকে এ খাট তৈরি করে তিনি মেলায় এনেছেন। শখের বশে তার এ খাট তৈরি করা। এটি তৈরি করতে প্রায় ৩৮ মাস সময় লেগেছে। সেগুন গাছ দিয়ে সম্পূর্ণ হাতে খোদাই করে বানানো হয়েছে এই রাজকীয় খাট।

তিনি আরও জানান, খাটটি তৈরি করতে তার ৫০ লাখ টাকার বেশি খরচ হয়েছে। এ কারণেই দাম চাচ্ছেন কোটি টাকা। শেষ পর্যন্ত মেলায় খাটটি বিক্রি হবে বলে আশাবাদী তিনি।

এরই মধ্যে আজ খাটের দাম উঠেছে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত। পরী পালঙ্ক এ খাটে ক্রেতার জন্য উপহার হিসেবে একটি মোটরসাইকেল এবং এক ভরি ওজনের স্বর্ণালঙ্কার থাকবে।

এবারের বাণিজ্য মেলায় দেশি-বিদেশি স্টল বসছে ৩৩১টি। মেলায় মোট স্টল ও প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ৪৮৩টি।

এর মধ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ১১২টি, মিনি প্যাভিলিয়ন ১২৮টি ও বিভিন্ন ক্যাটাগরির স্টলের সংখ্যা ২৪৩টি। এছাড়া বিদেশি প্যাভিলিয়ন ২৭টি, বিদেশি মিনি প্যাভিলিয়ন ১১টি ও বিদেশি প্রিমিয়ার স্টলের সংখ্যা ১৭টি।

এ বছর মেলায় ২১টি দেশ অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়াও রয়েছে থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, ভুটান, ব্রুনাই, দুবাই, ইতালি ও তাইওয়ান।

 

 

 

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -