বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ, নিহত ৪

0
241

ভারতের পশ্বিমবঙ্গে চতুর্থ দফার বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণের মধ্যে রাজ্যের কুচবিহার জেলায় বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে অন্তত চারজনের নিহতের খবর জানিয়েছে সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি।
কুচবিহারের শীতলকুচির জোড়পাটকির ১২৬ নম্বর বুথের বাইরে সংঘর্ষে জড়ায় প্রতিদ্বন্দ্বি দুই দলের সমর্থক ও কর্মীরা। তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি নিহতরা সবাই তাদের কর্মী। কেন্দ্রীয় বাহিনী বিজেপির গুলিতে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলেও দাবি করেছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দলটি। তৃণমূলের অভিযোগ বিজেপি’র হয়ে কাজ করছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। এই ঘটনার বিষয়ে প্রতিবেদন চেয়ে পাঠিয়েছে ভারতের নির্বাচন কমিশন।
এর আগে শনিবার (১০ এপ্রিল) সকাল সাতটায় শুরু হয়েছে রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ। রাজ্যের ৫ জেলার ৪৪টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। স্থানীয় সময় চলবে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত।
স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের অভিযোগ, সিআরপিএফ জওয়ানরা বিজেপির হয়ে কাজ করছে। রাতভর মদ-মাংস খেয়ে সকালে নির্বিচারে গুলি চালিয়েছে। সুষ্ঠ নির্বাচন করানোর ভার যাদের কাঁধে, তাদের নির্বিচারে গুলি চালানোর অধিকার কে দিয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল শিবির।
এক তৃণমূল কর্মীর বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, দলে দলে মানুষ ভোট দিতে যাচ্ছিলেন। সেই সময় বিনা প্ররোচনায় গুলি চালায় কেন্দ্রীয় বাহিনী। বুথের ভিতরে যে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন ছিল, তারাই এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করে তৃণমূল।
অন্যদিকে বিজেপি নেতা নিশীথ প্রামাণিক গোটা ঘটনার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দায়ী করেছেন। তার বক্তব্য, কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে যেভাবে লাগাতার উস্কানিমূলক মন্তব্য করছেন মমতা, তার জন্য মানুষ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে আক্রমণ করে। তাতেই গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছে সিআইএসএফ। সূত্র : এনডিটিভি, আনন্দবাজার