বিদ্যুৎ বিভ্রাটসহ কুলাউড়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন

0
30

মো: রেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:

ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাট,গ্রাহক হয়রানি, অতিরিক্ত ও ভুতুড়ে বিল প্রদান সহ কুলাউড়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতির দ্রুত প্রতিকার চেয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে কুলাউড়ার সর্ব বৃহৎ ব্যবসায়ী সংগঠন কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি। 

(১৩ সেপ্টেম্বর) সোমবার সকাল ১১ থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত কুলাউড়া চৌমুহনী চত্বরে অনুষ্ঠিত এই মানব বন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি বদরুজ্জামান সজল, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এম আতিকুর রহমান আখই এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় সংহিতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা খন্দকার লুৎফুর রহমান, উপজেলা বি এন পির সভাপতি জয়নাল আবেদীন বাচ্ছু,উপজেলা জাসদের সহ সভাপতি, ইসমাইল আলী মিন্টু,কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির সহ সভাপতি হাজি রফিক মিয়া ফাতু, প্রেসক্লাব কুলাউড়ার সভাপতি আজিজুল ইসলাম, সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাইদুল হাসান সিপন,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী,সেলুর রহমান, ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির কোষাধ্যক্ষ হাফিজ মোঃ বদরুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক মোঃ কুতুবউদ্দিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এইচ ডি রুবেল, ক্রীড়া সম্পাদক সাইফুর রহমান আফজল, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সুফিয়া রহমান ইতি, অনলাইন জার্নালিস্ট সোস্যাল সোসাইটির মহাসচিব ইউসুফ আহমদ ইমন,ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির ওয়ার্ড সম্পাদক, অাব্দুল্লাহ অাল মনি, অশোক চন্দ্র, এজাজ মাহমুদ চৌধুরী ফুল, রাজু অাহমদ দুলাল, মোঃ গৌছ মিয়া, মোঃ আব্দুল মতলিব,নজরুল ইসলাম, ওয়ার্ড সদস্য, রিংকু বর্ধন, শের আলী, শেখ সুমন, মারুফ আহমদ জালাল, কাওছার আহমদ চৌধুরী সাব্বির, আব্দুল মন্নান, হায়দর আলী, এনামুল হক, নজরুল ইসলাম সোনা, ইকবাল অাহমদ দিপু, জুনেদ অাহমদ, নাজিম বখশ ও মোঃ মোস্তফা মিয়া। সোস্যাল কেয়ার অব নেশনের সভাপতি সালা উদ্দিন সালোক সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মানব বন্ধনে প্রকট রোদ্র উপক্ষো করে শত শত ভুক্তভোগী বিদ্যুৎ গ্রাহক অংশ গ্রহন করে সংহতি প্রকাশ করেন।

মানববন্ধনে আগামী ( ৩০ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত সময় সীমা বেঁধে দিয়ে দ্রুত সমস্যা সমাধানের আহবান জানানো হয়, অন্যতায় কুলাউড়াবাসীকে সাথে নিয়ে কুলাউড়া বিদ্যুৎ বিতরণ কেন্দ্র ঘেরাও করা হবে বলে হুসিয়ারী করা হয়।

উল্লেখ যে, ধারাবাহিক কর্মসুচীর অংশ হিসাবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর স্মারকলিপি পেশ, বিভিন্ন সংগঠন ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সাথে মত বিনিময় এবং যোগাযোগ করে জনমত গঠন করা হবে।