বিয়ের পিঁড়িতে বসা হলো না আব্দুর রহমানের

মুহাম্মদ আনিচুর রহমানঃ
বিয়ের সব কিছুই চূড়ান্ত। এক সপ্তাহ পরেই বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা আব্দুর রহমানের (২৪)।বাড়িতেও চলছিল বিয়ের আমেজ। বিয়ে উপলক্ষে প্রস্তুতিও চলছিল বেশ। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বিয়ের বাজার সদায়ও শেষ করে নিয়েছেন দুই পরিবার। বিয়ের প্রস্তুতি উপলক্ষে প্রাতিষ্ঠানিক ছুটি শেষে মোটরসাইকেল যোগে নিজ কর্মস্থলে ফেরার পথে চট্টগ্রামের আনোয়ারায় সানলাইম সার্ভিস বাসের ধাক্কায় মৃত্যু হয় তার।
শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুর ৩টার দিকে চট্টগ্রাম বাঁশখালী সড়কে আনোয়ারায় লাবিবা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে এই ঘটনা ঘটে।
নিহত আব্দুর রহমান চট্টগ্রাম ইপিজেড এলাকায় ইউনিভার্সেল জিনস নামের একটি গার্মেন্টসে মেকানিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি বাঁশখালীর পূর্ব পুঁইছড়ি এলাকার ৫নং ওয়ার্ডে। তিনি ঐ এলাকার আব্দুল করিমের সন্তান।
তার পিতা আব্দুল করিম জানান,স্থানীয় এক কনের সঙ্গে আগামী সপ্তাহে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল তার। এই উপলক্ষে গতকাল বিয়ের বাজারও করেছেন দুই পরিবার। নিহত আব্দুর রহমান বিয়ের আলোচনা ও প্রস্তুতি উপলক্ষে প্রাতিষ্ঠানিক ছুটি নিয়ে গ্রামে আসছিল। এই দিকে জুমার নামাজ শেষে নিজ কর্মস্থলে ফেরার পথে চট্টগ্রামের আনেয়ারায় তার মৃত্যু হয়। আব্দুর রহমানের মৃত্যুতে পরিবারে চলছে শোকের ছায়া এবং তার পিতা ঘাতক বাসের চালকের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা করেন।
নিহত আব্দুর রহমানের বন্ধু বাপ্পা চৌধুরী জানান,তিনি ৬মাস খানেক আগে কালুরঘাট এলাকায় আমার সাথে একই ডিপার্টমেন্টে চাকরি করত সে খুব ভালো ছিল এবং আমার পরিচিত হিসেবে তার স্বভাব চরিত্র ভালো ছিল।জানতে পারলাম এক সপ্তাহ পরেই তার বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা ছিল। অনেক উৎসাহ উদ্দীপনায় তার বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। কিন্তু ঘাতক বাস তার সব স্বপ্নই কেড়ে নিয়েছে। আমার বন্ধুর মৃত্যু কোনমতেই মেনে নিতে পারছিনা আমরা।
আনোয়ারার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম দিদারুল ইসলাম শিকদার বলেন,তিনি শুক্রবার দুপুরে মোটরসাইকেল নিয়ে নিজ গ্রাম বাঁশখালী থেকে চট্টগ্রাম শহরের দিকে যাচ্ছিলেন। এসময় লাবিবা ক্লাবের সামনে পৌঁছালে পেছন দিক থেকে আসা একটি সানলাইন বাস তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় বলে জানান তিনি।
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -