ভারতের জনপ্রিয় রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সুমিত্রা সেন আর নেই!

 

 

বিনোদন ডেস্ক!

ভারতের জনপ্রিয় রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সুমিত্রা সেন আর নেই। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। গতকাল (২ জানুয়ারি) তাকে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে আনা হয়।

আজ (৩ জানুয়ারি) সকাল ৪টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে মারা যান প্রবীণ এ শিল্পী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর।

বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। তার নিউমোনিয়াও ছিল। তবে তার হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল। অবস্থার অবনতি হলেও নিউমোনিয়া কিছুটা কমে এসেছিল।

পরে কিডনির সমস্যা বেড়ে যায়। তাকে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। সোমবার শিল্পীকে বাড়ি ফিরিয়ে আনেন দুই মেয়ে শ্রাবণী সেন ও ইন্দ্রাণী সেন।

মেয়ে ইন্দ্রাণী সেন জানান, সোমবারও তাকে দেখতে বাড়িতে আসেন অনেকেই। তিনি চিনতেও পারছিলেন।

শিল্পীর আরেক মেয়ে সংগীতশিল্পী শ্রাবণী সেন নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় মায়ের মৃত্যু সংবাদটি সবাইকে জানিয়েছেন। জানা গেছে, আজই কেওড়াতলা মহাশ্মশানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

উল্লেখ্য, ১৯৩৩ সালের ৭ মার্চ সুমিত্রা সেনের জন্ম। তিনি ধীরে ধীরে রবীন্দ্রসংগীতের জগতে নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন। তার গাওয়া রবীন্দ্রনাথের গান শ্রোতাদের কাছে আজও প্রিয়।

রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সুমিত্রা সেনের প্রয়াণে শোক প্রকাশ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শোকবার্তায় মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী সুমিত্রা সেনের প্রয়াণে আমি গভীর শোকপ্রকাশ করছি। তিনি আজ কলকাতায় শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর।

রবীন্দ্রসঙ্গীতের অগ্রগণ্য শিল্পী সুমিত্রা সেন দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে নিজস্ব গায়কীতে শ্রোতাদের মুগ্ধ করে রেখেছিলেন। প্রশিক্ষক হিসেবে তিনি অগণিত গুণমুগ্ধ ছাত্র-ছাত্রী রেখে গেছেন।

সংগীতে অসামান্য অবদান রাখার জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাকে ২০১২ সালে ‘সংগীত মহাসম্মান’ প্রদান করে। সুমিত্রা সেনের সঙ্গে আমার দীর্ঘদিনের নিবিড় সম্পর্ক ছিল। তার প্রয়াণে সংগীত জগতের এক অপূরণীয় ক্ষতি হলো।

আমি সুমিত্রাদির দুই কন্যা ইন্দ্রাণী ও শ্রাবণী এবং সুমিত্রাদির পরিবার-পরিজন ও অনুরাগীদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি। শোকবার্তায় লেখেন মুখ্যমন্ত্রী।

শিল্পীর প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে রবীন্দ্রসংগীত প্রেমীদের মধ্যে। সুদীর্ঘকাল ধরে তিনি রবীন্দ্রনাথের গানের সাধনা করেছেন।

 

 

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -