ভারতে নারীর পেটে ডাক্তারের তোয়ালে, তদন্তের নির্দেশ

 

 

স্বাধীন নিউজ ডেস্ক!
ভারতের উত্তরপ্রদেশে এক নারী রোগীর পেটে ডাক্তারের তোয়ালে ফেলে রাখেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআইয়ের বরাত দিয়ে বুধবার (৪ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

এতে বলা হয়, প্রসব বেদনা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর উত্তরপ্রদেশের আমরোহার বাঁশ খেরি গ্রামের মাতলুব নামের এক ডাক্তার এক নারীর পেটে অপারেশরনের সময় তোয়ালে ফেলে রাখেন।

ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর সেখানকার চিফ মেডিকেল অফিসার (সিএমও) রাজীব সিংগাল এটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

ভুক্তভোগী ওই নারীর নাম নাজরানা।

সিএমওর তথ্য অনুযায়ী, ডাক্তার মাতলুব সাইফি নার্সিং হোমে অপারেশন করার পরে নাজরানার পেটে তোয়ালে রেখেছিলেন।

আমরোহার নওগাওয়ানা সাদাত থানা এলাকায় ওই নার্সিং হোমটি অনুমতি ছাড়াই চলতো বলেও অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, চিকিৎসা কর্মীদের গাফিলতির কারণে রোগীর পেটের ভেতর তোয়ালে ফেলে রাখার ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে ভুক্তভোগী নারী তলপেটে ব্যথার কথা জানানোর পর অভিযুক্ত ডাক্তার তাকে আরও পাঁচ দিন ভর্তি করে রাখেন এবং বাইরে ঠাণ্ডার কারণে পেটে ব্যথা হচ্ছে বলে জানান।

 

 

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -