মদনে কাবিটা প্রকল্পের কাজের জন্য সম্মানে ভাসছেন ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী

0
70

মোঃরকি
মদন উপজেলা প্রতিনিধি

নেত্রকোনার মদনে ৮নং ফতেপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মুতিয়াখালি বাজার হইতে পুলিশ মিয়ার বাড়ি পর্যন্ত মাটির রাস্তা সংস্কারের কাজের গুনগত মান ভাল হওয়ায় গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ কাবিটা প্রকল্পের কর্মসূচির আওতার কাজের জন্য প্রশংসায় ভাসছেন ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, ২০২০-২১ অর্থ বছরে গ্রামীন অবকাঠামো কর্মসূচির আওতায় কাবিটা প্রকল্পের ২০০০০০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পিআইসি স্বপ্না আক্তারের নেতৃত্বে এ কাজটি সম্পন্ন হয়।

৭, ৮, ৯ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা আসনে ইউপি সদস্য পিআইসি স্বপ্না আক্তার এ কাজটি সম্পূর্ণ করেন।

বনতিয়শ্রী গ্রামের হোসেন আলির ছেলে জামাল উদ্দিন বলেন এই রাস্তা দিয়ে বর্ষার মৌসুমে হাটু সমান কাঁদা দিয়ে হেঁটে যেতে খুব কষ্ট করতে হতো। রাস্তাটা উঁচু করে মাটি কাটায় যাতায়াতের জন্য সহজ হল। মৃত ডেন্ডু মিয়ার ছেলে, ছন্দু মিয়া বলেন, বর্ষাকালে যানবাহন নিয়ে যাতায়াত করতে খুব কষ্ট করতে হত, সেই কষ্ট এইবার শেষ হল। মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে আঃ রাশিদ বলেন, আমার ৬০ বছর বয়সে বনতিয়শ্রী গ্রামে এত সুন্দর করে রাস্তায় মাটি কাটতে কোন চেয়ারম্যানরে দেখছিনা,এইবার রফিক চেয়ারম্যান করছে দেখলাম।

এলাকার জনগণ সন্তোষ প্রকাশ করে বলে রাস্তাটি এত সুন্দর করে করেছে এর দাবিদার চেয়ারম্যান।

এই কাজের পিআইসি স্বপ্না আক্তার বলেন,আমি কাজে বিশ্বাসী, চেষ্টা করেছি কাজটি ভাল ভাবে করার জন্য।

৮ নং ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি সর্বাত্মকভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি, এলাকার ভাল কিছু করার জন্য। বনতিয়শ্রী গ্রামের রাস্তাটি দিয়ে বর্ষার মৌসুমে কাঁদা দিয়ে হেঁটে যেতে জনগণের খুব কষ্ট করতে হতো। রাস্তাটা উঁচু করে মাটি কাটায় যাতায়াত জন্য সহজ হল,আমি চেষ্টা করব, এই রাস্তাটা পাকা করে করার জন্য।

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শওকত জামিল বলেন, কাজের গুনগত মান ভাল করার জন্য প্রতিটি কাজের পিআইসি কে নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছি স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করার জন্য।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমদ বলেন, সরকারের অর্থ সঠিকভাবে জনগণের কাজে লাগানোর জন্য সব সময় কাজের মনিটরিং করে যাচ্ছি।