মহাকাশে যাবেন অ্যামাজন প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস আজ সন্ধ্যায়

0
7

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৬টা থেকে শুরু হবে প্রস্তুতি। ঘণ্টায় ২ হাজার ৩০০ মাইলের গতিবেগে মহাকাশের উদ্দেশে পৃথিবী থেকে ছুঁটে যাবে এ রকেট।তার নিজের কোম্পানি ব্লু অরিজিনের তৈরি নিউ শেফার্ড রকেটে করে ১১ মিনিটের জন্য মহাকাশে যাবেন শীর্ষ এই কোটিপতি। টেক্সাসের ভ্যান হর্ন থেকে ছেড়ে যাবে নিউ শেফার্ড। লঞ্চপ্যাড থেকে ছেড়ে যাওয়ার পর পৃথিবী থেকে আড়াই লাখ ফিট ওপরে উঠে রকেট থেকে আলাদা হয়ে যাবে ক্যাপসুলটি। ক্যাপসুলটি সাড়ে ৩ লাখ ফিট ওপরে উঠবে। নিজেদের ৪ মিনিটের জন্য ভরশূন্য অনুভব করবেন যাত্রীরা। সিট থেকে উঠে ভাসবেন ক্যাপসুলের ভেতর।

তার সফরসঙ্গী তার ভাই মার্ক বেজোস, ১৮ বছর বয়সী অলিভার ডিমেন, ৮২ বছর বয়সী ওয়ালি ফাঙ্ক।যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় মহাকাশের উদ্দেশে যাত্রা করবে এ রকেট। ব্লু অরিজিনের লাইভ স্ট্রিমিংয়ে পুরো মহাকাশ যাত্রাই দেখতে পারবে সাধারণ মানুষ।

সর্বোচ্চ উচ্চতায় ওঠার পর ক্যাপসুলটি প্যারাসুট খুলে দেবে। এই প্যারাসুটের মাধ্যমে পৃথিবীতে নেমে আসবে ক্যাপসুলটি। মহাকাশ থেকে ফিরে এসে সফরসঙ্গীদের সঙ্গে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনও করবেন বেজোস।

২০০০ সালে রকেট টেকনোলজি নিয়ে কাজ করার জন্য অ্যামাজনের পাশাপাশি ব্লু অরিজিন প্রতিষ্ঠা করেন জেফ বেজোস। কোটিপতি আর রকেট কোম্পানি ভার্জিন গ্যালাক্টিকের প্রতিষ্ঠাতা রিচার্ড ব্র্যানসনের মহাকাশ অভিযাত্রার মাত্র ৯ দিন পর মহাকাশে যাচ্ছেন প্রতিদ্বন্দী বেজোস। তবে বেজসের মহাকাশযাত্রায় যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, সেটা রিচার্ড ব্র্যানসনের ব্যবহার করা প্রযুক্তি থেকে আলাদা।

বিশ্বের শীর্ষ কোটিপতি জেফ বেজোস। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ২০ হাজার কোটি ডলার। তার ভাই মার্ক বেজস নিউইয়র্কের দাতব্য সংস্থার সঙ্গে যুক্ত।মানুষের চন্দ্র জয়ের ৫২তম বার্ষিকীতে জেফ বেজোস মহাকাশে যাচ্ছেন। ১৯৬৯ সালে অ্যাপোলো-১১ মহাকাশযানে চড়ে চন্দ্রাভিযানে অংশ নেন নিল আর্মস্ট্রং, মাইকেল কলিন্স ও বাজ অলড্রিন। তখন বেজোস ছিলেন মাত্র পাঁচ বছরের এক শিশু।

মহাকাশ অভিযানে বেজোসের সঙ্গে থাকবেন তার ছোট ভাই মার্ক বেজস এবং বিশ্বের প্রথম দিককার বিমানচালক ৮২ বছরের ম্যারি ওয়ালেচ (ওয়্যালি ফাঙ্ক নামে পরিচিত) এবং একটি প্রাইভেট ইকুইটি ইনভেস্টমেন্ট প্রতিষ্ঠানের সিইও’র ১৮ বছরের ছেলে ওলিভার ডিমেন। সুত্র:সময় সংবাদ।