‘মা’ নিয়ে নবীন কবি আকরামের কবিতা- মায়ের আর্তনাদ

0
228

 

 

” মায়ের আর্তনাদ “

মা,ও মা……

সেই ভাঙা ছাউনিতে নিভু নিভু জ্যোছনার আলো
মায়ের অশ্রুসিক্ত চোখে পানি,

মস্তবড় ছেলে,
মা যেন হয়েছে তার বোঝা!
টানছে ঘানী।

ভঙ্গুর কুটিরে সুখের স্মৃতি
পায়না খুঁজে মা’য়ে
অথচ,
সন্তান আগলে রাখতো বুকের ভেতর
বৃষ্টি ভেজা গায়ে।

ডাকতো মায়ে সাতরাজার ধন মানিক আমার,
বাবা লক্ষী সোনায়।
ছেলে এখন বড় অট্টালিকায়
মা আমার পায়না ঠাঁই ঘরে’র কোনায়।

দুঃখিনী মা ভাঙা কুটিরে
ছেলের মস্ত বড় বাড়ী
মা হাটে হায় নগ্নপায়ে।

ছেলের কষ্টে কাঁদে যে মা’য়
দুঃখ পোঁড়া সেই বুকে
জনম দুঃখী জননী তোর
মরছে নির্ঘুম ধুঁকে ধুঁকে।

দশ মাস জননী গর্ভে ধারন করে
দুনিয়ার আলো দিলো তোরে,
সব কিছুই আজ গেলিরে ভুলে
নিজেরই সুখের ঘোরে।

ছেলের আমার অসুখ করছে
মা সারারাত
নির্ঘুম চোখে ছেলের পাশে
সেই মা এখন ছাউনি ছাড়া কুটিরে

ঘুঁন ধরেছে বাঁশে বাঁশে।
ছেলের চোখ পড়েনা
আসে না আশেপাশে!

নিজ সুখের আলোয় ভুলে গেলি
গাঁয়ের সেই ছোট্ট বাড়ী।
যেথায় পোঁতা আছে তোর নাড়ী।

মায়ের পায়ে তোর স্বর্গের
চাবি।
কোরআনে দেখ মা ছাড়া তুই
নরকে যাবি।

 

★ সাম্প্রতিক সময়ে ছেলে নিজের মাকে অবহেলা করে , মা’কে সম্মান করেনা মায়ের একটু বয়স হলেই বৃদ্ধাশ্রমে রেখে আসে কিন্তু এই মা ছেলে/মেয়েকে ১০ মাস গর্ভে ধারণ করে পৃথিবীর আলো দেখিয়েছে আর আজ সন্তান তার মাকে দেখে রাখতে পারে না তারই প্রতিবাদের অংশ হিসেবে ‘মায়ের আর্তনাদ’ কবিতাটি লিখেছেন নবীন কবি-

মোঃ আকরাম হুসাইন (বাবু)
নজিপুর সরকারি কলেজ, নওগাঁ।