মিনিকক্সবাজারে দর্শনার্থীদের পিটিয়ে আহত করলো হোটেল কর্তৃপক্ষ

0
64

ঢাকা দক্ষিন প্রতিনিধি :

ঢাকার দোহারের মৈনট ঘাটে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের পিটিয়ে আহত মৈনট ঘাটের ‘পদ্মা খাবার হোটেলের’ মালিক মোতালেব ও তার দলবল।

সোমবার বিকেল ৬টার দিকে মৈনট ঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সময় উপস্থিত শাহীন নামে এক দর্শনার্থী জানান, আমরা হোটেলের পাশে দাড়িয়ে কথা বলছিলাম। এমন সময় দেখি হোটেলের ভিতরে কয়েকজন কাস্টমারের সাথে হোটেলের মালিক ও স্টাফরা বকাঝকা করছে। হোটেলের স্টাফরা বিভিন্ন ধরনের জিনিস নিয়ে মারার জন্য চেষ্টা চালায় সে কাস্টমারদের উপর। তখন স্থানীয়রা এগিয়ে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে কাস্টমারদের পাঠিয়ে দেয়। তার কিছুক্ষণ পরে যখন সে পর্যটকরা মৈনট থেকে চলে যাওয়ার জন্য গাড়িতে উঠতে যায় তখনি মোতালেবের স্টাফ সহ বাহিরের আরো কয়েকজন মিলে পাশে চাকার দোকান থেকে কয়কটি রড এনে তা দিয়ে পিটিয়ে তাদের আহত করে। আসলে এটা খুবই দুঃখজনক যে পর্যটকদের এভাবে পিটিয়ে আহত করেছে। এটা কখনই কাম্য নয়।

এ বিষয়ে আহত দর্শনার্থী সুরুজ বলেন, আমরা পদ্মা খাবার হোটেলে খাবারের জন্য যাই। হোটেলের স্টাফদের খারাপ ব্যবহারের জন্য এক পর্যায়ে তাদের সাথে আমাদের কথা কাটা কাটি হয়। যখন হোটেলের এক স্টাফ আমাকে মারার জন্য এগিয়ে আসে আমি আত্মরক্ষার্তে তার গায়ে হাত তুলতে বাধ্য হয়। পরে লোকজন বিষয়টি সমাধান করে দিলে আমরা চলে যাই। যখন আমরা মৈনট থেকে একেবারে চলে যাওয়ার জন্য গাড়িতে উঠতে যাবো তখন হোটেলের কয়েকজন স্টাফসহ আরো কয়েকজন আমাদের উপর লোহার পাইপ নিয়ে হামলা করে। আমাদের সাথে থাকা মহিলাদেরও তারা আঘাত করে।

জানা যায়, দর্শনার্থীরা মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর থেকে মৈনট ঘাটে ঘুরতে এসেছিলো।

মৈনট ঘাটের স্থানীয় কয়েকটি হোটেল কতৃপক্ষ এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। সেই সাথে তারা বলেন, দর্শনার্থী দের গায়ে হাত তোলা বড় ধরনের অপরাধ। এর ফলে মৈনট ঘাটের সুনাম নষ্ট হবে।

ঘটনার সময় স্থানীয় কয়েকজন সংবাদকর্মীও উপস্থিত ছিলেন এবং তারা হোটেল কতৃপক্ষকে দর্শনার্থীদের গায়ে আঘাত করতে নিষেধ করেন। কিন্তু হোটেল মালিক মোতালেব সংবাদকর্মীদের কথা উপেক্ষা করে তার স্টাফ ও কয়েকজন ভারাটিয়া গুন্ডা দিয়ে দর্শনার্থীদের পিটিয়ে আহত করেন।

ঘটনায় উপস্থিত সংবাদকর্মী সাইফুল ইসলাম বলেন, ছোট খাটো বিষয় নিয়ে এভাবে পর্যটকদের সাথে খারাপ ব্যবহার কাম্য নয়। আমাদের বাধা অতিক্রম করে মোতালেবের স্টাফসহ বাইরের কিছু লোক পর্যটকদের পিটিয়ে আহত করে। আমরা ফিরানোর চেষ্টা করলেও মোতালেবের স্টাফ নামের গুন্ডাবাহীনি তা শুনেনি।
এরকম ঘটনা মিনি কক্সবাজার খ্যাত মৈনট ঘাটের সুনাম নষ্ট করবে। হোটেল মালিক ও স্টাফদের আরও নম্র ভদ্র হতে হবে বলে আমরা মনে করছি।

এ বিষয়ে মোতালেব বলেন, আমি আমার স্টাফদের তাদেরকে মারতে বলিনি। রাস্তায় গিয়ে মারলে সেটার দায়ভার আমার না।

এ ঘটনায় উপস্থিত সকল দর্শনার্থীর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। এবং এই হোটেল কতৃপক্ষের প্রকৃত বিচার আসা করছে।
ভবিষ্যতে দর্শনার্থীদের সাথে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যেন না ঘটে এমনটাই প্রত্যাশা সকলের।