মিরপুরের বৃষ্টিতে শৈশবে হারালেন সাকিব

স্পোর্টস ডেস্ক

অলস সেই বৃষ্টির সময়গুলো কি মনে পড়ে? টিনের চালে টুপটুপ শব্দের সেসব দিন। আপনার হয়তো আর তর সইছিল না। বর্ষার প্রথম হোক কিংবা শেষ বৃষ্টি। গা এলিয়ে দিতেন পিচ্ছিল মাটিতে। আপনাকে টেনে নিয়ে যেত অনেকখানি।

‘আহা! সেসব আনন্দের দিন!’ সাকিব আল হাসান নিশ্চয়ই এমনটাই ভাবছিলেন। এমনিতে মাঠের বাইরে সময়টা ভালো যাচ্ছে না বাংলাদেশের। চট্টগ্রামে হারের পর মিরপুর টেস্টে ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় খেলতে নামা। এখানে এল বৃষ্টির বাগড়া। প্রথম দিনে তাও কিছুক্ষণ খেলা হলো, দ্বিতীয় দিনে থামতে হয়েছে ৩৮ বল পরই।

খেলা নেই। সাকিব আল হাসান কিছুক্ষণ ফুটবল সঙ্গী করে অধিনায়ক মুমিনুল হকের সঙ্গে আলাপ করলেন। এরপরই যেন হারালেন অন্য ভুবনে। কে জানে, তাকে কি স্কুল ছুটির আনন্দই পেয়ে বসল কি না। শৈশবে বৃষ্টির কারণে স্কুলে না গিয়ে অথবা আগেভাগে ছুটি পর যেমন দৃশ্যের দেখা মিলত, সাকিব করলেন তেমন কিছুই।

বৃষ্টি থেকে ক্রিজকে বাঁচাতে কাভার টানিয়ে দেওয়া হয়েছে শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের অনেকটাজুড়ে। সেখানে জমেছে পানিও। সাকিব নিজের শরীরটা ভাসিয়ে দিলেন তার ওপরই। মুখ গুঁজে দিলেন পানিতে। আনন্দের অন্য ভুবনে হারালেন সেই স্কুলে পড়া ছেলেটির মত

খেলায় হয়তো ফেরা হবে না। বৃষ্টিতে বিরক্ত অনেকেই। ভাবছেন, বেয়াড়া বৃষ্টি আসার সময়টা বুঝি ঠিকঠাক হলো না। কোথায় ক্রিকেটে বুঁদ হয়ে থাকব, তা-না। কিন্তু যখন আপনি সাকিবকে দেখবেন বৃষ্টিকে নিয়ে শৈশবে হারাতে। তখন হয়তো মনে হবে, বৃষ্টিটা আসলে মন্দ না। বৃষ্টিতে গা ভাসাতে ইচ্ছে করবে তখন আপনারও!

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -