মেসির জয় উদযাপনে সাইকেলে টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়ায় তাম্মাত

জেলা প্রতিনিধি, পঞ্চগড়

৩৬ বছরের আক্ষেপ ঘুচিয়ে আর্জেন্টিনা পেল বিশ্বকাপ শিরোপার দেখা। এর মধ্য দিয়ে ফুটবল বিশ্বের মহাতারকা লিওনেল মেসির হাতে উঠল পরম আরাধ্য সোনালি ট্রফি। আর্জেন্টিনা ও মেসির ভক্ত তাম্মাত বিন খয়ের (২৩)। এবার বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের মধ্য দিয়ে মেসি খেলে ফেলেছেন ১০০৩তম ম্যাচ। প্রিয় তারকার ১০০৩তম ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখতে বন্ধুদের কথা দিয়েছিলেন মেসি বিশ্বকাপ জিতলে দেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত পর্যন্ত ১ হাজার ৩ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে পাড়ি দেবেন।

কথা রাখলেন তাম্মাত বিল খয়ের। আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জেতার পর গত ২৪ ডিসেম্বর টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের জেটিঘাট থেকে সাইকেল যাত্রা শুরু করেন। সেখান থেকে চট্টগ্রাম হয়ে ফেনী, কুমিল্লা, টাঙ্গাইল, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ হয়ে ট্রলারে যমুনা পার হয়ে গাইবান্ধা হয়ে রংপুর আসেন। সেখান থেকে নীলফামারী হয়ে টানা ৯ দিন সাইকেল চালিয়ে রোববার (১ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট পৌঁছান। এ মধ্য দিয়ে ১ হাজার ৩ কিলোমিটার সম্পন্ন করে প্রিয় তারকা লিওনেল মেসির প্রতি ভালোবাসার এক দৃষ্টান্ত আঁকলেন এ যুবক।

তাম্মাত বিল খয়ের স্বাধীন নিউজ কে বলেন, ছোটবেলা থেকেই আর্জেন্টিনা ফুটবল দলকে ভালোবাসি। এ দলের প্রিয় তারকা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি। গত ৩৬ বছর ধরে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ পাচ্ছিল না। আমাদের আর্জেন্টাইন ভক্তদের কাছে এটা অত্যন্ত আফসোসের বিষয়। এবারের কাতার বিশ্বকাপে বিশ্বাস ছিল হয়তো মেসিরা জিতবে। ফাইনালের এক ঘণ্টা আগে বন্ধুদের বলেছিলাম, যদি মেসি বিশ্বকাপ জেতে তাহলে তার ক্যারিয়ারের ১০০৩তম ম্যাচ উপলক্ষে আমি ১ হাজার ৩ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে পাড়ি দেব। আমি কথা রেখেছি। গত ২৪ ডিসেম্বর কক্সবাজার জেলার টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের জেটিঘাট থেকে উত্তরের উপজেলা তেঁতুলিয়ার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করি।

তিনি আরও বলেন, এ সাইকেল সফরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ আমাকে যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন। এছাড়া অনলাইন থেকেও প্রচুর শুভেচ্ছা পেয়েছি। যেসকল জেলার ওপর দিয়ে সাইকেল চালিয়ে এসেছি, সেখানকার স্থানীয়রা যথেষ্ট আপ্যায়ন ও ভালোবাসা দিয়ে গ্রহণ করেছেন।

জানা যায়, তাম্মাতের জন্ম চট্টগ্রামে। থাকেন গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়। বাবা নেয়ামত আলী সিকদার পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। আর মা নুর জাহান বেগম গৃহিণী। তারা সবাই থাকেন চট্টগ্রামে। সাত ভাই-বোনের মধ্যে তাম্মাতই ছোট। বাংলাদেশ পুলিশের সাইক্লিং দলের চুক্তিভিত্তিক একজন খেলোয়াড় তাম্মাত। তিনি এর আগে ২০১৯ সালের ২৫ অক্টোবর চট্টগ্রাম থেকে সাইকেলে বের হয়ে ১৫ দিনে ৬৪ জেলা ভ্রমণ করেন। সাইকেল চালিয়ে পাড়ি দেন ৩ হাজার ৯৭০ কিলোমিটার।

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -