মোবাইল চুরির অপবাদে শিশুকে ২ দিন আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ

0
58

জেলা প্রতিনিধি | ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে মোবাইল চুরির অভিযোগে ইয়াকুব (১২) নামের এক শিশুকে হাত-পা বেঁধে দুইদিন আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাকে নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

নির্যাতনের শিকার শিশু ইয়াকুব উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের মেরাশানী গ্রামের মৃত মজনু মিয়ার ছেলে। বাবা মারা যাওয়ার পর শিশুটি তার নানার বাড়িতে বসবাস করছে।

সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, ‌‘আমি শিশুটিকে মারধরের বিষয়টি শুনেছি। শিশুটির নানা সোলায়মান মিয়া এসে আমার কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন। বিষয়টি অত্যন্ত অমানবিক।’

তিনি বলেন, ‘স্থানীয়রা আমাকে জানিয়েছে ঈদের দিন শুক্রবার মেরাশানী বাজার এলাকা থেকে একটি মোবাইল ফোন চুরি হয়। এই মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে শিশু ইয়াকুবকে পরদিন শনিবার আটক করে গ্রাম পুলিশ মজিদ মিয়ার ছেলে বাবু ও একই এলাকার আলিম মিয়ার ছেলে রুবেলসহ আরও কয়েকজন যুবক। তারা শিশুটির হাত-পা রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন করে। পরদিন রোববার তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

এদিকে, ভিডিও ভাইরাল হওয়ার বিজয়নগর থানা পুলিশ নির্যাতনকারীদের আটক করতে অভিযান শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান। তিনি জানান, শিশু নির্যাতনের ভিডিওটি ভাইরাল হলে আমরা জানতে পারি। ইতোমধ্যে নির্যাতনকারীদের আটক করতে তৎপরতা শুরু করেছে পুলিশ।