ম্যানস ল্যাবের সাথে ইয়াংস্টার রাহাত খান

0
18

আপনারা ভাবছেন আমরা কি নিয়ে কথা বলছি? হ্যাঁ, আমরা কথা বলছি একজন ইয়াংস্টার কে নিয়ে ইয়াংস্টার তখনই তাকে বলা হয়, যে তখন নিজের কাছে নিজে সফল। আমরা কথা বলছি একজন উদ্যোক্তা নিয়ে। আমরা ছবির সিনেমা বা নাটকের সিনেমার উদ্যোক্তা কথা বলছি না।আমরা কথা বলছি রিয়েল উদ্যোক্তাকে নিয়ে যাকে বলা হয় ইয়াংস্টার রাহাত খান, কেন তার নাম ও পদবী লাগানো হলো এটার কারনটা জানতে চান?

তাহলে চলুন জেনে নেয় তার জীবনকাহিনীটা

ইয়াংস্টার রাহাত খানের স্বপ্ন ছিল ছোট থেকেই নিজের পায়ে নিজে দাঁড়াবে, এবং নিজের পায়ে দাঁড়াতে গিয়ে তার অনেক বাঁধা সামনে পড়ে। কিন্তু, সেই সকল বাধাকে অতিক্রম করে সে সামনে দিকে এগিয়ে থাকেন।সে চিন্তা করে দেখল তার দারা চাকরি করা সম্ভব না, তাই সে চিন্তা করলো আমি চাকরি করব না। যেমন ভাবা তেমন কাজ, সে চাকরি না করে নিজের গুটি গুটি পায়ে হেঁটে গেল তার স্বপ্নের দিকে তার স্বপ্ন ছিল একটি ভালো সেলুনের দোকান দিবে। অনেক অপশন ছিল তার কাছে। অনেক ভালো বিসনেস করতে পারতো তিনি, কিন্তু কেন তিনি সেলুন বেছে নিলো? তার চিন্তা ছিলো মানুষের জন্য ভালো কিছু করবে, ভালো কিছু দিবে খুব কম খরচে, এইজন্য তারে ভাবনাচিন্তা কে নিয়ে, মনস্থির করে মানসিকতাকে স্থির করে বসে পড়ল। সেলুনের বিজনেসে। তিনি কিন্তু জানতো না যে সেলুনের বিজনেস কিভাবে করতে হয়। কিন্তু তিনি সেটা জানত কোন কাজ ধরে সেই জিনিসটাকে সফল করতে হয়, লস করার পরেওসে কিন্তু তারপরও কাজটাকে ছেড়ে দেয়নি।সে কাজটাকে আরো আটকে ধরেছে। যাতে তিনি সফল হতে পারেন, এবং এখন তিনি একজন সফল উদ্যোক্তা। মিরপুরে তাকে সবাই ইয়াংস্টার রাহাত বলে ডাকে। কারণ শুধুমাত্র তিনি তার ব্যবহার এবং তার কাজ এবং কথার সাথে একইভাবে মিল রেখে কাজ করেন। বিধায় তাকে এখনই ইয়াংস্টার রাহাত বলা হয়।ভালো চাকরি করতে হবে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে এমন কিছু ভাবা যুবকদের বলছি তোমরা তাকে ফলো করতে পারো। সে একজন ফলো করার মতই মানুষ। তার জীবনকে তোমার অনুসরণ করতে পারো। কোনো কাজই ছোট নয় প্রত্যেকটি কাজই মূল্যবান। সব কাজেই তোমরা ভালো চোখে দেখবে, তাহলে ভালো কিছু সামনে পাবে, পরিশ্রম করলে সেটি সফলতা আসবেই। তার সেলুনের দোকান টি এ মিরপুর ১৩ তে অবস্থিত অবশ্যই তার সেলুনটি মেনস লেব নামে পরিচিত আপনারা অবশ্যই তার দোকান ভিজিট করবেন।

আমরা চাইলে কিন্তু ইয়াংস্টার হয়ে উঠতে পারি। একটি সঠিক সিদ্ধান্ত জীবনকে সফলতার চূড়ায় পৌঁছে দেয়। সাধারন প্রত্যেকটি যুবকদের বলছি তোমরা বসে থেকো না তোমরা এখনই এগিয়ে যাও সামনে এগিয়ে যাও, হয়তোবা সামনেই তোমাদের জন্য অনেক ভালো কিছু অপেক্ষা করছে।

এস এম আদনান উদ্দিন
বিশেষ প্রতিনিধি