যৌনপল্লীর অবহেলিত শিশুদের পাশে দাঁড়ালেন এমপি জর্জ

0
41

মোঃ রবিউল ইসলাম হৃদয়
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর অবহেলিত শিশুদের পুনর্বাসন ও পড়ালেখা অব্যাহত রাখার জন্য ব্যক্তিগতভাবে অনুদান দিয়েছেন কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ও যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ।

শুক্রবার (২১ মে) দুপুরে নিজ কার্যালয়ে অবহেলিত শিশুদের সমাজের মূল স্রোতে এনে স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে পরিচালিত দৌলতদিয়া সেফ হোম কর্তৃপক্ষের হাতে ব্যক্তিগত উদ্যোগে নগদ এক লাখ টাকা তুলে দেন এমপি।
এসময় গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) বিপ্লব ঘোষ, গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সজ্জল, সেফ হোমের কর্মকর্তা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আমজাদ হোসেন ফকির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর অবহেলিত শিশুদের সমাজের মূল স্রোতে এনে পুনর্বাসনের জন্য দীর্ঘদিন ধরে পরিচালিত হয়ে আসছে দৌলতদিয়া সেফ হোমটি। বেসরকারি উদ্যোগে পরিচালিত এই সেফ হোম থেকে লেখাপড়া শিখে অনেকেই আজ নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছেন। এই সেফ হোম থেকে বর্তমানে অনেকেই স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন।

বর্তমান রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কর্মজীবী কল্যাণ সংস্থার নির্বাহী পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুল জব্বার সেফ হোমটি প্রতিষ্ঠা করেন।

বিভিন্ন দাতা সংস্থার অনুদান নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে পরিচালিত হয়ে আসছিল এই সেফ হোমটি। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে দাতা সংস্থা অর্থায়ন বন্ধ করে দেয়ায় সেফ হোম প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করতে গিয়ে চরম বিপাকে পড়ে কর্তৃপক্ষ। ভরণপোষণসহ এখানকার শতাধিক ছেলে-মেয়ের লেখাপড়া প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়। বিষয়টি জানতে পেরে কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনার জন্য কর্তৃপক্ষের হাতে ব্যক্তিগত উদ্যোগে এ অনুদান তুলে দেন।

এসময় এমপি বলেন, অর্থাভাবে যদি সেফ হোমটি বন্ধ হয়ে যায় তাহলে সমাজের পিছিয়ে পড়া অবহেলিত জনগোষ্ঠীর সন্তানদের পড়ালেখা বন্ধ হয়ে যাবে। এ কথা চিন্তা করেই তিনি সেফ হোম কর্তৃপক্ষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

প্রসঙ্গত, কুষ্টিয়া-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ও যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ দীর্ঘদিন ধরে ব্যক্তিগত উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের বাইসাইকেল প্রদান, কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ, চেয়ার-টেবিল প্রদানসহ শিক্ষা বিস্তারে নানা জনহিতকর কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছেন।