রাজবাড়ীতে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করলো স্বামী

আলামিন হোসেন শাকির
রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ
রাজবাড়ীর সদর উপজেলার বানিবহ ইউনিয়নে বাণীবহ গ্রামে পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগরা হওয়ার এক পর্যায়ে স্বামী আব্দুল লতিফ কাজী(৩৫) তার স্ত্রী বিউটি বেগম (৩০)কে ধারালো চাপাতি দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে এবং ঘটনাস্থলেই তার স্ত্রী মারা যায়।
বুধবার (১৮ জানুয়ারী) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে বার্থা গ্রামের ৪ নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত বিউটির মিম (১১) ও মুসা (৪) নামে ২টি সন্তান রয়েছে।
৫ম শ্রেনীতে পড়ুয়া ছোট্ট মেয়ে মিম (১১) বলেন, রাতে আমরা সবাই ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ মায়ের চিৎকার শুনে ঘুম ভেঙ্গে দেখি বাবা মাকে চাপাটি দিয়ে কুপিয়ে মারছে। দৌড়ে ঘর থেকে বের হয়ে ছোট চাচা কে ডাকি। আমাদের চিৎকার শুনে আশেপাশের সবাই ছুটে আসলে বাবা তখন পালিয়ে যায়।
নিহত বিউটির পিতা বিল্লাল মোল্লা বলেন, আমার বাড়ির পাশেই বিউটি তার স্বামী সন্তাদের নিয়ে বসবাস করে। গতরাতে আমার নাতনী মিমের চিৎকার শুনে ছুটে গিয়ে দেখি ওদের ঘরের মেঝেতে আমার মেয়ে বিউটির রক্তাক্ত দেহ পড়ে আছে।আমি আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই।
৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য ও নিহত বিউটির আপন চাচা আঃ সালাম বলেন, ১২ বছর আগে পারিবারিকভাবে ওদের বিয়ে হয়। গত কয়েক বছর ধরে ওদের স্বামী স্ত্রীর মাঝে প্রায় প্রতিদিনই ঝগড়াবিবাদ লেগে থাকতো। অনেকবার বুঝালেও সমাধান হয়নি। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও দোষীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।
রাজবাড়ী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহাদাত হোসেন জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে লতিফ কাজী তার স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে  সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘাতক লতিফ কাজীকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। পাশাপাশি হত্যার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ।
এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -