সিরাজগঞ্জে প্রাথবিক বিদ্যালয়’র প্রধান শিক্ষক‘র বিরুদ্ধে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগ

0
36

সংবাদদাতা : সিরাজগঞ্জ জেলাধীন উল্লাপাড়া উপজেলার উধুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজা সুলতানার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, অনৈতিক ভাবে প্রধান শিক্ষক পদে যোগদান সহ নানাবিধ অনিয়মের উঠেছে।

শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ওয়ার্কশীট দেওয়ার কথা থাকলেও উধুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজা সুলতানা গত ৪-৫ মে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে ডেকে নিয়ে এসে ৫০-৬০ টাকার বিনিময়ে শিক্ষার্থীদেরকে ওয়ার্কশীট হস্তান্তর করেন।

সরেজমিনে অনেক শিক্ষার্থীর অভিভাবক (আঃ কুদ্দুস, আঃ জলিল, কে এম আতাবুল, আনিসুর রহমান, আজিমউদ্দিন, আলাল, রবিউল, হাছেন, আনার আলী) সহ আরও অনেকের সাথে ও অনেক শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়।

এছাড়াও তিনি ২০১৭-২০২০ খ্রিঃ পর্যন্ত একাধারে ৪ বছর শহীদ মিনার নির্মাণের জন্য প্রাক্কলন দেখিয়ে টাকা আত্মসাৎ করেন। যদিও এ বছর শহীদ মিনার তৈরি করলেও কাজ এখনও অসমাপ্ত রেখেছেন। অভিভাবক, শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায় কোন দিবস যথাযথ ভাবে উৎযাপন করেন না তিনি। এ বিষয়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মৌখিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক এবং তার স্বামী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কে এম সাইফুল ইসলাম ক্ষমতার দাপট দেখান। এছাড়াও বিদ্যালয়টি সম্পূর্ণ ভেঙ্গে নির্মান করার সময় কোন রকম স্টক রেজিস্ট্রার তৈরি না করে বহু মূল্যবান জিনিস আত্মসাৎ করেন।

ইতোমধ্যে জানা যায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আজিজা সুলতানা এসএসসি সনদ দিয়ে ২৬ জানুয়ারি, ১৯৯২ সহকারী শিক্ষক হিসেবে তেবাড়ীয়া রেজিঃ বেঃ সঃ যোগদান করেন এবং ১৯৯৭ সালে ঘোনা কুচিয়া মারা কলেজে নিয়মিত শিক্ষার্থী হিসেবে ভর্তি হয়ে সরকারি আকবর আলী কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন।

২০১২ সালের ৮ জানুয়ারি উক্ত এইচএসসি’র সনদ দেখিয়ে অর্থের বিনিময়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ প্রাপ্ত হন যেটা সরকারি চাকরি বিধি সম্মত নয়, আইনত অপরাধ। এসব বিষয় নিয়ে অভিভাবক মণ্ডলী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এর কাছে লিখিত অভিযোগ দিলেও কোন সুরহা মেলেনি।