advertisement

সমাবেশ সফল করতে সিলেট মহানগর বিএনপির প্রচারণা

উৎফল বড়ুয়া, সিলেট

সাবেক প্রধানমন্ত্রী, দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে সিলেটে রেজিস্ট্রারি মাঠে আগামী মঙ্গলবার বেলা ২টায় বিশাল সমাবেশের আয়োজন ক রেছে বিএনপি। সমাবেশ সফল ও ব্যাপক জনসমাগমের লক্ষ্যে বিরামহীন প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে সিলেট মহানগর বিএনপি। এরই অংশ হিসেবে আজ রোববার দুপুরে মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে লিফলেট (প্রচারপত্র) বিতরণ করা হয়েছে।
নগরীর জিন্দাবাজার থেকে লিফলেট বিতরণ শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে আম্বরখানায় গিয়ে শেষ হয়। সাধারণ মানুষ, পথচারী, বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ী, যানবাহনের চালকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের মধ্যে এই লিফলেট বিতরণ করা হয়। সর্বস্তরের জনসাধারণ স্বতস্ফূর্তভাবে লিফলেট গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

লিফলেট বিতরণকালে বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাখাওয়াত হাসান জীবন বলেন, ‘বাংলাদেশ দুঃশাসনের যাঁতাকলে পিষ্ট হচ্ছে। এখানে মানুষ মৌলিক অধিকারটুকু পাচ্ছে না। সাবেক রাষ্ট্রপতির সহধর্মিণী, তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, ষোলো কোটি মানুষের স্পন্দন বেগম খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসা গ্রহণের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। এরচেয়ে ন্যক্করজনক ঘটনা আর কি হতে পারে! এই ব্যর্থ সরকার জিয়া পরিবারকে ধ্বংসের নীলনকশা বাস্তবায়ন করতে চায়। কিন্তু দেশপ্রেমী আপামর জনতা আওয়ামী ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবেন ইনশাআল্লাহ।’
এ সময় নবগঠিত মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির আহবায়ক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী বলেন, ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সম্পূর্ণ সুস্থ অবস্থায় কারাগারে গিয়েছিলেন। সরকারের হেফাজতে আজ তিনি গুরুতর অসুস্থ। উন্নত চিকিৎসাসেবার অভাবে তাঁর জীবন আজ সংকটাপন্ন। অমানবিক সরকার ইচ্ছে করেই বেগম জিয়াকে উন্নত চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত করে রাখছে। সরকারের এমপি-মন্ত্রী জ্বর-সর্দি হলেই চিকিৎসার জন্য বিদেশে দৌড়ান। অথচ তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে সম্পূর্ণ নিজ খরচে বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নিতে দিচ্ছে না এই সরকার।’
লিফলেট বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাখাওয়াত হাসান জীবন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ কলিম উদ্দিন মিলন, নবগঠিত মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির আহবায়ক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক ছাত্রনেতা মিজানুর রহমান চৌধুরী মিজান, বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য হাদিয়া চৌধুরী মুন্নী, মহানগর বিএনপির সদ্য সাবেক সভাপতি নাসিম হোসাইন, বর্তমান আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব মিফতাহ সিদ্দিকী, যুগ্ম আহবায়ক হুমায়ুন কবির শাহীন, ফরহাদ চৌধুরী শামীম, সৈয়দ মিছবা, ইমদাদ হোসেন চৌধুরী, এডভোকেট রোকশানা বেগম শাহনাজ, সৈয়দ মঈন উদ্দিন সুহেল, সালেহ আহমদ খসরু।

মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্যদের মধ্যে মুকুল আহমেদ মুর্শেদ, আক্তার রশিদ চৌধুরী, শামীম মজুমদার, মাহবুব চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাবেক সহ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মঞ্জুর হোসেন মঞ্জু, সাবেক সহ-যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক উজ্জল রঞ্জন চন্দ, সাবেক সহ-সমাজসেবা সম্পাদক মফিজুর রহমান জুবেদ, মহিলা দল নেত্রীদের মধ্যে ফাতেমা জামান রুমি ও রেহানা বেগম শিরিন, মহানগর বিএনপির সাবেক সদস্য শফিকুর রহমান টুটুল, সাব্বির আহমদ, দেওয়ান আরাফাত চৌধুরী জাকির, রোম্মান আহমদ, সেলিম আহমদ রনি, মঈনুল হক স্বাধীন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক কমিটির সদস্য কাউছার হোসেন রকি, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নাজিম উদ্দিন, মহানগর ছাত্রদলের সহসভাপতি আব্দুল হাছিব, সহসভাপতি মুহিবুর রহমান লিটন, যুগ্ম সম্পাদক ছদরুল ইসলাম লোকমান, সেলিম মিয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকিরুল ইসলাম চৌধুরী জিসান, মোস্তাফিজুর রহমান, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম, আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক ইফতেখার আহমদ সানি, জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল হাসেম জাকারিয়া, মহানগর কৃষক দলের সাবেক সদস্যসচিব মারুফ আহমেদ টিপু, সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সল আহমেদ, ইমন আহমেদ, চৌধুরী সোবহান আজাদ, আশরাফুল ইসলাম জাহিদ, মদন মোহন কলেজ ছাত্রদলের আহবায়ক কমিটির ১ম সদস্য নোবেল হোসেন সাইম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -spot_img

সর্বাধিক পঠিত