সাভারে চাঁদাবাজসহ আটক ৯

0
17

মোঃ শান্ত খান ঢাকা জেলা প্রতিনিধি

সাভার পৌর এলাকার বিরুলিয়া রোডে পরিবহনে চাঁদাবাজিকালে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ট্রাক চালক জাহিদ বেপারি সাভার মডেল থানায় বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গ্রেপ্তারকৃত চাঁদাবাজরা হচ্ছেন, কুড়িগ্রাাম জেলার ভুরঙ্গীমারী থানার হাবিবুর রহমানের ছেলে মোঃ নান্নু (৩২), একই জেলা ও থানা এলাকার মকবুল হোসেনের ছেলে নাসির উদ্দিন (২৯), দিনাজপুর জেলার চিরির বন্দর থানার মনছুর আলীর ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৪৫) ও ঢাকা জেলার সাভার থানা এলাকার চাঁন মিয়ার ছেলে পলাশ (২০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সাভারের বিরুলিয়া রোডে শাহীবাগ চৌরাস্তা মোড় এলাকায় ট্রাক ও পিকআপসহ মালবাহী গাড়িতে চাঁদা আদায় করছিলো একটি চক্র। এসময় ট্রাক চালক জাহিদ বেপারি দাবিকৃত চাঁদা ১২০ টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে চাঁদাবাজদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে ও সড়কটিতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। তীব্র যানজটে অপেক্ষাকৃত র‌্যাব ৪ টহল টিমের নজরে এলে তারা ঘটনাস্থল থেকে ৪ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মোঃ রুবেল ওরফে টিভি রুবেল (৩৫), মোঃ রুবেল ওরফে কাউন্টার রুবেল (৩৮), ইসরাফিল (৩০) ও মোঃ সুমন (২২) সহ অজ্ঞাত ৪-৫ জন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এব্যাপারে সাভার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাদরুজ্জামান বলেন, চাঁদাবাজির অভিযোগে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বাকী পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তিনি আরো বলেন, প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, সাভার বিরুলিয়া রাজাশন রোড এলাকায় নিয়মিত একটি চক্র বহুদিন যাবৎ বিভিন্ন পরিবহনে চাঁদাবাজি করে আসছে। ইতিপূর্বে সাভার মডেল থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে কয়েকজন চাঁদাবাজকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠালেও থেমে নেই চাঁদাবাজদের দৌড়াত্ব।

অপরদিকে ঈদুল আযহা ঘিরে সক্রিয় হওয়া গরু চোর চক্রের ৫ সদস্যকে আটক করেছে আশুলিয়া পুলিশ। এঘটনায় দুটি গরু উদ্ধার করা হয়েছে। রাতে আশুলিয়ার হ্যাচারীর মোড় এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে গরু দুটি উদ্ধার করা হয়।