সিরাজগঞ্জে শাহজাদপুরে যুবকের বাড়িতে স্ত্রী’র স্বীকৃতির দাবিতে দুই নারীর অবস্থান,

0
11

সেলিম রেজা সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আক্তার হোসেন (৩৫) নামের এক যুবকের বাড়িতে রাসিদা খাতুন (৩০) ও শিল্পী খাতুন (২৮) নামের দুই নারী স্ত্রী’র স্বীকৃতির দাবিতে অবস্থান করছে,
আক্তার হোসেন শাহজাদপুর পৌর শহরের বাড়াবিল উত্তরপাড়ার ইউসুফ আলীর ছেলে, তিনি পাবনার বেড়ায় পিডিবিতে কর্মরত রয়েছেন। রাসিদা খাতুন উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের চুলধরী গ্রামের নওশের আলীর মেয়ে ও শিল্পী খাতুন পাবনা জেলার বেড়া থানার শহীদ নগরের শীতল ফকিরের মেয়ে,
সরেজমিনে শাহজাদপুর পৌর শহরের বাড়াবিল উত্তরপাড়ার ইউসুফ আলীর বাড়িতে মঙ্গলবার সন্ধায় গিয়ে দেখা যায়, রাসিদা খাতুন তার দুই মেয়ে খাদিজা খাতুন ও আসমা খাতুনকে নিয়ে অবস্থান করছেন। অপরদিকে শিল্পী খাতুনও একই বাড়িতে অবস্থান করছেন, তবে বাড়িতে আক্তারের পরিবারের কোন সদস্য ছিলনা।
রাসিদা খাতুন প্রতিবেদককে জানান, ১০/১২ বছর পূর্বে পারিবারিকভাবে আক্তার হোসেনের সাথে আমার বিয়ে হয়। পরে আমাদের ঘর আলোকিত করে খাদিজা (৭) ও আসমা (৩) নামের দু্ই কন্যার জন্ম হয়।
আক্তার বেড়া পিডিবিতে চাকুরি করার সুবাদে শিল্পী খাতুননের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে আমাকে ডিভোর্স দেয়। তবে গত জুন মাসের ৯ তারিখে আমরা আবারও বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই,
শিল্পী খাতুন প্রতিবেদককে জানান, দুই বছর পূর্বে আক্তার হোসেন পারিবারিকভাবে আমাকে বিয়ে করেন, বিয়ের পর থেকেই আমি শশুরবাড়িতে অবস্থান করে সংসার শুরু করি। তবে বেশ কিছুদিন হলো আক্তার আমার উপর শারীরিক নির্যাতন করা শুরু করে এবং আমাকে আমার বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়,
পরে অভিযুক্ত আক্তার হোসেনের পিতা ইউসুফ আলী বাড়িতে ফিরলে তাকে জিজ্ঞাসা করে জানা যায়, আক্তার শিল্পী খাতুনকে কখন কবে বিয়ে করেছিল আমি কিছুই জানিনা তবে সে আমার বাড়িতে আক্তারের সাথে সংসার শুরু করে। আমি তাদের কাছে শুনেছি যে তারা নাকি বিয়ে করেছে
তিনি আরও জানান, রাসিদা খাতুনকে ডিভোর্স দিয়েছিল তবে তারা আবারও বিয়ে করেছে কিনা সেটা আমি জানিনা, খাদিজা ও আসমা দুইজন আমারই নাতনী।