সিলেট সিটি করপোরেশনে নতুন এলাকা অন্তর্ভূক্ত করে গেজেট প্রকাশ

0
34

রুবেল আহমদ সিলেট প্রতিনিধি ঃ
অবশেষে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক) সীমানা বর্ধিতকরণ সংক্রান্ত গেজেট প্রকাশিত হয়েছে। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় (এলজিআরডি)-এর স্থানীয় সরকার বিভাগের (সিটি কর্পোরেশন-১) এর উপসচিব নূমেরী জামান স্বাক্ষরিত গেজেটটি ৩১ আগস্ট (মঙ্গলবার) প্রকাশিত হয়।

এর আগে সিসিকের বর্ধিত এলাকাকে ওয়ার্ডে বিভক্তকরণ ও বিন্যাস সম্পন্ন করে তা আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠায় সিলেট সফর করে যাওয়া বিশেষ টিম। মন্ত্রণালয়ের পাসের পর তা গেজেট আকারে প্রকাশের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়।

চলতি বছরের ২৬ জুলাই সিসিক-এর বর্ধিতকরণ প্রস্তাব প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) বৈঠকে অনুমোদিত হওয়ার পর অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায় বর্ধিতকরণের বিষয়টি। বাকি ছিলো কেবল বর্ধিত এলাকার বিভক্তিকরণ ও ওয়ার্ড বিন্যাস।

সিসিক সূত্র জানায়, গত সপ্তাহে কঠোর গোপনীয়তার সাথে সেই বিষয়টি সম্পন্ন করা হয়। এ লক্ষ্যে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের একটি টিম সিলেট সফর করে। ওয়ার্ডের সীমানা নির্ধারণ সংক্রান্ত বিষয়টি জটিল হওয়ায় স্থানীয় দপ্তরকে সাথে নিয়ে অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে তা পর্যবেক্ষণ করে যায় মন্ত্রণালয় থেকে আগত টিম। পরে তারা ওয়ার্ডে বিন্যাস করে পরে তা গেজেট আকারে প্রকাশের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠান।

জানা গেছে, সিসিকের বর্তমান আয়তন ২৬.৫০ বর্গ কি.মি.। সীমানা সম্প্রসারণের জন্য প্রস্তাবিত এলাকার আয়তন ৩৩ বর্গ কি.মি.। সম্প্রসারণের পর সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মোট আয়তন হয়েছে ৫৯.৫০ বর্গ কি.মি.। এতে সিসিকের সাথে সিলেট সদর ও দক্ষিণ সুরমার ৭টি ইউনিয়নের ২৮টি মৌজা অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

সিলেট সদর ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলার যেসব এলাকা সিসিকে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে সেগুলো হচ্ছে- সিলেট সদর উপজেলার টুকেরবাজার ইউনিয়নের কুমারগাঁও মৌজা, জেএল নম্বর ৮০, মইয়ারচর-৮১ (দাগ নম্বর ৭৭, ৮২, ৮৩, ৮৯, ৯০, ৯১ ব্যতিত) টুকেরবাজার ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত ভূমি, খুরুমখলা শাহপুর-৮২, আখালিয়া-৮৮ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি) ও ঘোপাল উত্তর-৮৩ (টুকেরবাজার ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত অংশ), খাদিমনগর ইউনিয়নের কুমারগাঁও-৮০, খাদিমপাড়া ইউনিয়নের বহর-৭০, সাদিপুর ১ম খন্ড-৯৩ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), টিলাগড়-৯৫, দেবপুর-৯৬ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), কসবা কুইটুক-১০০, সুলতানপুর চক-১০১, পেশনেওয়াজ-১০২ ও হাজিরাই-১০৩ (সেনানিবাসের জন্য অধিগ্রহণকৃত ভূমি ব্যতিত), টুলটিকর ইউনিয়নের সাদিপুর ১ম খন্ড-৯৩ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), টিলাগড়-৯৫ ও দেবপুর ৯৬ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), দক্ষিণ সুরমার কুচাই ইউনিয়নের পশ্চিমভাগ-১০৪, কুচাই-১০৫, পালপুর-১০৬, হবিনন্দি-১০৭ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), মনিপুর-১০৮ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), আলমপুর-১০৯ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), গোটাটিকর-১১০ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), রুগনপুর-১২৭, তৈয়ব সুলতান-১২৮ ও শ্রীরামপুর-১২৯, বরইকান্দি ইউনিয়নের পিরিজপুর-১১৪, ধরাধরপুর-১১৫, বরইকান্দি-১১৬, (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি) ও গোধরাইল-১২৬ (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি), তেতলি ইউনিয়নের ধরাধরপুর-১১৫, বরইকান্দি-১১৬, (পূর্বে সিলেট সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত অংশ ব্যতিত অবশিষ্ট ভূমি) ও বলদী-১২৫ (আংশিক) (দাগ নম্বর ২১৯৯-২৩৪৯, ৩৫০৯-৩৫১১, ৩৫১৩, ৩৫৩৫)।