সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকদের হোটেল ভাড়ায় ছাড়

টেকনাফ প্রতিনিধি

সেন্টমার্টিনে বেড়াতে যাওয়া পর্যটক

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের কারণে কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন দ্বীপে বেড়াতে গিয়ে আটকে পড়া পর্যটকদের হোটেল ও মোটেলের ভাড়ায় বিশেষ ছাড় দিচ্ছে কর্তৃপক্ষ। শনিবার সেন্টমার্টিনে ভ্রমণে এসে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে আটকে পড়েন পাঁচশ’র বেশি পর্যটক। ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত থাকায় দুই দিনেও তারা ফিরতে পারেননি।

সেন্টমার্টিন দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও হোটেল মালিক সমিতির আহ্বায়ক মো. নুর আহমেদ বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের কারণে দ্বীপে আটকে পড়া পর্যটকদের রুম ভাড়ায় ছাড় দেওয়া হচ্ছে। দ্বীপে ছোট-বড় ১৫৪টি হোটেল-মোটেলসহ কটেজ রয়েছে। সেখানে পাঁচশ’র বেশি পর্যটক বাধ্য হয়ে রাতযাপন করতে বাধ্য হচ্ছেন। এ জন্য তাদের অনেকের আর্থিক সংকট দেখা দিয়েছে। তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে কক্ষের ভাড়া ৫০ ভাগ ছাড়ের বিষয়ে দ্বীপে মাইকিং করা হয়েছে।’

জানতে চাইলে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরী জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে সেন্টমার্টিনে ভ্রমণে এসে আটকে পড়া পর্যটকদের সুবিধার্থে রুম ভাড়ায় ৫০ ভাগ ছাড় দিতে হোটেল মালিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে দ্বীপে মাইকিং করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পর্যটকদের ফিরিয়ে আনা হবে। প্রতিনিয়ত দ্বীপে পর্যটকদের খোঁজ রাখা হচ্ছে।’

দ্বীপের উত্তর বিচের শাহাজালাল হোটেলের মালিক হেলাল উদ্দিন জানান, তার হোটেলে বারোটি কক্ষে থাকছেন ভ্রমণে আসা পর্যটকদের দুটি দল। জাহাজ চলাচল বন্ধের কারণে তাদের দ্বীপে অবস্থান করতে হচ্ছে। তাদের কথা ভেবে ভাড়ায় ৬৫ শতাংশ ছাড় দেওয়া হয়েছে।’

এই ওয়েবসাইটের সকল লেখার দায়ভার লেখকের নিজের, স্বাধীন নিউজ কতৃপক্ষ প্রকাশিত লেখার দায়ভার বহন করে না।
এই বিভাগের আরও খবর
- Advertisment -

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment -