হত্যা ও চুরি মামলার আসামী আটক করেছেন খাগড়াছড়ি সদর জোনের সেনাবাহিনী

0
18

জসিম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্য অঞ্চল প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি সদর জোন গোয়েন্দা তথ্যের ভিওিতে একাধিক হত্যা ও চুরি মামলার আসামী মো:সাজু মিয়াকে পলাতক অবস্হায় সদর উপজেলার ঠাকুরছড়া নতুন বাজার থেকে খাগড়াছড়ি সদর জোনের সেনাবাহিনী।

বুধবার (২১ জুলাই ২০২১) বিকালের দিকে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার নারিকেল বাগান (হোটেল মাউন্ট ইন) এলাকায় মেরিজ টোবাকো কোম্পানীর গোডাউনে চুরির সময় উক্ত কোম্পানীর কর্মচারী এল্টু চাকমা (২৬), মাইসছড়ি, মহালছড়ি, খাগড়াছড়িকে মোঃ সাজু মিয়া (২১), এল্টু চাকমাকে গুরুতরভাবে আহত করে এবং আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফেলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে আহত ব্যক্তিকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক এল্টু চাকমা (২৬),কে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

মৃত এল্টু চাকমা মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি এলাকার বাসিন্দা।

এ বিষয়ে সংবাদ প্রাপ্ত হওয়া মাত্রই (রাতে) খাগড়াছড়ি সদর জোন তাৎক্ষণিক তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করে। পরবর্তীতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ২১ জুলাই ২০২১ তারিখ ১১৩০ ঘটিকায় (ঘটনার প্রায় ১১ ঘন্টার মধ্যে) আসামী মোঃ সাজু মিয়া (২১), পলাতক অবস্থায় ঠাকুরছড়া নতুন বাজার, থেকে তাকে আটক করে খাগড়াছড়ি সদর জোনের সেনাবাহিনী জানা যায়, আটককৃত ব্যক্তি ইতোপূর্বে চুরি এবং মাদকের মামলায় জেল হাজতে ছিল এবং বর্তমান জামিনে রয়েছে।

এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি সদর জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল তৌফিকুল বারী এর সাথে যোগযোগ করা হলে তিনি বলেন, চুরি, ডাকাতী এবং সশস্ত্র সদস্যদের তথ্য সংগ্রহের লক্ষ্যে খাগড়াছড়ি সদর জোন গোয়েন্দা তৎপরতা এবং আভিযানিক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এছাড়াও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্য অঞ্চলে দীর্ঘদিন যাবৎ সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধনকে দৃঢ় রাখতে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। ভবিষ্যতে এরূপ কার্যক্রমে জড়িত ব্যক্তিদের বিষয়ে আরো কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।